রংপুরে স্বামীকে বেঁধে স্ত্রীকে ধর্ষণ, গ্রেপ্তার ২

নিজস্ব সংবাদদাতা ঃ রংপুরের পীরগঞ্জে স্বামীকে বেঁধে রেখে স্ত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে দুজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গ্রেফতারকৃতদের নাম আজাহার আলী (৫০) ও নাইবুল্লাহ নাইবুল (২৫)। আজাহার রায়পুর ইউনিয়নের বাহাদুরপুর গ্রামের মৃত কেতু মামুনের ছেলে। নাইবুলের বাবা একই গ্রামের মোকছেদ আলী। গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে এদের আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।এর আগে বুধবার রাতে পীরগঞ্জ থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দম আইনে গ্রেফতারকৃত দুজনসহ তিনজনকে আসামি করে মামলা করেন ধর্ষণের শিকার নারী। পুলিশ জানায়, ধর্ষণের শিকার হওয়ার নারী উপজেলার বড়আলমপুর ইউনিয়নের খষ্টি গ্রামের বাসিন্দা। তিনি স্থানীয় এনজিওতে মাঠকর্মী হিসেবে কাজ করেন। মঙ্গলবার রাত সাড়ে ১২টার দিকে কাজ শেষে স্বামীর সঙ্গে সাইকেলে চড়ে বাড়ি ফিরছিলেন ওই নারী। বাহাদুর গ্রামের শেষ প্রান্তে কলার জমিতে ওঁৎ পেতে থাকা কয়েকজন দুর্বৃত্ত তাদের পথরোধ করে। দুর্বৃত্তরা ওই নারীর স্বামীর হাত-পা রশি দিয়ে বেঁধে ফেলে এবং মারধর করে। পরে কলার জমিতে নিয়ে স্বামীর সামনে ৩ দুর্বৃত্ত ওই নারীকে ধর্ষণ করে পালিয়ে যায়। বুধবার সকালে ওই নারী বিষয়টি পুলিশকে অবহিত করলে দুজনকে গ্রেপ্তার করা হয়।
পীরগঞ্জ থানা সূত্রে জানা যায়, বাহাদুরপুর গ্রামের শত শত বাসিন্দা থানায় জড়ো হয়ে গ্রেপ্তার দুজনের মুক্তির সুপারিশ করেন। পরবর্তীতে বুধবার রাতে ধর্ষণের শিকার হওয়া নারী মামলা করেন অজ্ঞাত একজনসহ তিনজনকে আসামি করে। মামলা নম্বর ৩২/তাং- ২৪/০৬/১৫।পীরগঞ্জ থানার ওসি ইসরাইল হোসেন বলেন, কৌশলগত কারণে অভিযোগ পেয়ে আগে অপরাধীদের গ্রেপ্তার ও পরে মামলা রুজু হয়েছে। অজ্ঞাত আরেক আসামিকে শনাক্ত করতে তদন্ত করছে পুলিশ।