করোনা আটকে দিল তাঁদের বিয়ে

এ বছর দুটো বিয়ের দিকে তাকিয়ে ছিল বলিউড। বরুণ ধাওয়ান ও নাতাশা দালাল এবং রিচা চাড্ডা ও আলী ফজল ঘোষণা দিয়েছিলেন, বিয়ে হবে এ বছরের গ্রীষ্মে। কিন্তু বিধি বাম। করোনাভাইরাস থামিয়ে দিয়েছে বিয়ের বাদ্যি। আপাতত তাই বাজছে না তাঁদের বিয়ের সানাই।

রিচা ও আলী ফজলের বিয়ে হওয়ার কথা ছিল এ বছরের এপ্রিলে। চার বছর দুজনের প্রেম, এ বছরই ঘরকন্না শুরু হবে; কিন্তু রিচা ও আলীকে সব গুটিয়ে অপেক্ষা করতে হচ্ছে আরও বেশ কিছুদিন—খবর তাঁদের বিশ্বস্ত একটি সূত্রের। রিচা ও আলীর বিয়েতে যুক্তরাষ্ট্র ও যুক্তরাজ্যের অনেকেই আসবেন।

ভারতীয় গণমাধ্যম ‘বোম্বে টাইমস’–এর প্রতিবেদন অনুযায়ী, ১৫ এপ্রিল রিচা ও আলীর সেই শুভদিন। হাঁটু গেঁড়ে মালদ্বীপে বিয়ের প্রস্তাব দিলেও বিয়ে হওয়ার কথা ছিল ভারতেই, দিল্লিতে। আর ঘরোয়া আয়োজনের সেই বিয়েতে উপস্থিত থাকার কথা ছিল দুই পরিবারের সদস্য আর ঘনিষ্ঠ বন্ধুবান্ধব ও বলিউডের সহকর্মীদের।

চার দিন ধরে চলার কথা ছিল বিয়ের অনুষ্ঠান। ১৮ এপ্রিল লক্ষ্ণৌতে হওয়ার কথা ছিল প্রথম রিসেপশন। ২০ এপ্রিল মুম্বাইয়ে আলী ফজল আর রিচা চাড্ডার বন্ধু, সহশিল্পী ও গণমাধ্যমকে আমন্ত্রণ জানিয়ে হওয়ার কথা ছিল এক গ্র্যান্ড রিসেপশন। কথা ছিল, সেই পার্টি সেরেই দুজনে আবার উড়াল দেবেন মালদ্বীপে।

এই বিয়েতে আসার কথা ছিল ফ্রিদা পিন্টো, অভিনেত্রী জুডি ডেঞ্চসহ আরও অনেক বিদেশি তারকার। ২০১৭ সালে মুক্তি পাওয়া ‘ভিক্টোরিয়া অ্যান্ড আবদুল’ ছবিতে রানি ভিক্টোরিয়ার চরিত্রে দেখা গিয়েছিল জুডি ডেঞ্চকে। এই সময় ভারতে বিদেশি আসা ও লোকসমাগম নিষিদ্ধ বলা চলে। তাই আপাতত ওপরের সমস্ত পরিকল্পনাই ভুলে থাকতে হচ্ছে।

অন্যদিকে এই জুটির বিয়ের দামামা থামতেই নাতাশা দালাল আর বরুণ ধাওয়ানের বিয়ের বাদ্য বাজার কথা। এই খবর ঘুরছে বেশ কবছর থেকেই। বরুণ–নাতাশার পছন্দ ছিল থাইল্যান্ডে একটি দ্বীপে চার হাত মিলবে। সে ইচ্ছায় গুড়েবালি হয়ে যায় বেশ কদিন আগেই। তারপর পরিকল্পনা ছিল ছোট করে মুম্বাইতে হবে তাঁদের বিয়ে, সেটিও ভেস্তে গেছে। করোনাভাইরাসের আক্রমণে বিয়ের তারিখ গিয়ে পৌঁছেছে নভেম্বরে। তাতে অবশ্য ভাগ্যও খুলেছে বরুণ–নাতাশার। পছন্দের দ্বীপেই হবে সে বিয়ে, কদিনের অপেক্ষা আরকি।