যৌতুকের দাবিতে গৃহবধূকে হত্যার অভিযোগ

বরিশাল সংবাদ দাতা : যৌতুকের দাবিতে স্বামী ও তার পরিবারের সদস্যদের অমানুষিক নির্যাতনের একপর্যায়ে গৃহবধূ সিমু বেগমকে পরিকল্পিত ভাবে হত্যা করা হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় শনিবার দিবাগত রাতে পুলিশ স্বামী আলাউদ্দিন শেখকে আটক করেছেন। নিহত সিমু জেলার গৌরনদী উপজেলার দক্ষিণ নাঠৈ গ্রামের হালিম সরদারের কন্যা।
নিহতের বোনজামাতা আনিসুর রহমান জানান, তার শ্যালিকা সিমু আক্তার তাদের সাথে ঢাকার হাজারীবাগের ভাড়াটিয়া বাসায় থাকতো। সে সুবাধে শরিয়তপুর শহরের কালা চাঁন শেখের ছেলে আলাউদ্দিনের সাথে পরিচয়ের সূত্রধরে তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। একপর্যায়ে গত দু’বছর পূর্বে পরিবারের সবার অমতে সিমুকে আলাউদ্দিন বিয়ে করে। তারা হাজারীবাগের বোরহানপুর মহল্লার ৯নং গলির হাজ্বী তাহের মিয়ার বাসার ভাড়াটিয়া হিসেবে বসবাস করে আসছে। গত দশ মাস পূর্বে তাদের দাম্পত্য জীবনে একটি কন্যাসন্তান জন্মগ্রহণ করে। আনিসুর রহমান অভিযোগ করেন, অতিসম্প্রতি আলাউদ্দিন ও তার পরিবারের সদস্যরা দুই লাখ টাকা যৌতুকের দাবিতে সিমুর ওপর চাপ প্রয়োগ করে। এনিয়ে প্রায়ই সিমুকে শারীরিক নির্যাতন করা হতো। তারই ধারাবাহিকতায় শনিবার দিবাগত রাত বারোটার দিকে আলাউদ্দিন, তার মা ও পরিবারের অন্যান্য সদস্যরা সিমুকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করে। বিষয়টি ভিন্নখাতে প্রবাহিত করার জন্য ফ্যানের সাথে গলায় রশি দিয়ে আত্মহত্যার কথা রটিয়ে নিহত সিমুকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়ার পথে তাকে (আনিসুরকে) মোবাইল ফোনে খবর দেওয়া হয়। তাৎক্ষণিক তিনি হাজারীবাগ থানা পুলিশকে খবর দিয়ে হাসপাতালে গিয়ে সিমুর লাশ উদ্ধার করেন। এ সময় পুলিশ হাসপাতাল থেকে নিহতের স্বামী আলাউদ্দিন শেখকে আটক করেছেন। এ ব্যাপারে হত্যা মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।