সাতক্ষীরায় কাবিখার ৬৫৫ বস্তা গম পাচারের সময় জব্দ, আটক ৪

সাতক্ষীরায় কাজের বিনিময়ে খাদ্য কর্মসূচি (কাবিখা) প্রকল্পের ৬৫৫ বস্তা সরকারি গম পাচারের সময় জব্দ করা হয়েছে। এ ঘটনায় আটক করা হয়েছে চারজনকে।

শহরের বাঁকাল চেকপোস্ট ও পাটকেলঘাটার একটি গোডাউনে শুক্রবার সন্ধ্যা পর্যন্ত অভিযান চালিয়ে এসব গম জব্দ করা হয়।

জব্দকৃত গমের মূল্য ১২ লাখ ১৮ হাজার টাকা।

পরে রাতে এ ঘটনায় দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) খুলনা সমন্বিত কার্যালয়ের ইন্সপেক্টর নীল কমল পাল ও বিজন কুমার সাতক্ষীরা থানায় মামলা দায়ের করেন।

আটকরা হলেন, কালিগঞ্জের তারালি ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ড মেম্বার শহিদুল ইসলাম, আবদুল খালেক ঘোরামি, লিয়াকত আলী ও আবদুল গনি।

সাতক্ষীরা সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মীর্জা সালাউদ্দীন জানান, কালিগঞ্জ উপজেলার সাতটি ইউনিয়নের বিভিন্ন ওয়ার্ডে রাস্তার কাজ না করেই বরাদ্দকৃত গম পাচারের উদ্দেশ্যে ট্রাকে ভরে কালিগঞ্জ খাদ্য গুদাম থেকে সাতক্ষীরা অভিমুখে আনা হচ্ছিল ।

এসময় বাঁকাল এলাকা থেকে একটি ট্রাক ও পাটকেলঘাটার গোডাউন থেকে আরেকটি ট্রাকের মোট ৬৫৫ বস্তা গম জব্দ করা হয়। সরকারি গম ক্রয় করেন পাটকেলঘাটার মুকুন্দ ফ্লাওয়ার এন্ড ডাউল মিলের মালিক গোবিন্দ সাধু।

এদিকে সরকারি গম পাচারের সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে পুলিশ কালিগঞ্জের তারালি ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ড মেম্বর শহিদুল ইসলাম, আবদুল খালেক ঘোরামি, লিয়াকত আলী ও আবদুল গনিকে আটক করেছে। এছাড়াও দুজন পালিয়ে গেছে।

পরে শুক্রবার রাতে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) খুলনা সমন্বিত কার্যালয়ের ইন্সপেক্টর নীল কমল পাল ও বিজন কুমার সাতক্ষীরা থানায় মামলা দায়ের করেন ।