৪০ লাখ শিক্ষার্থীর জন্য সরকারের ‘ওয়ান স্টুডেন্ট ওয়ান ল্যাপটপ’ প্রকল্প

উত্তরবঙ্গ নিউজ ডটকম: করোনাভাইরাস সংকটকালীন সময়ে দেশজুড়ে প্রায় তিনমাস বন্ধ হয়ে আছে দেশের সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, বন্ধ ছিল শিক্ষা কার্যক্রম। কয়েকবার অনলাইন ক্লাসের সিদ্ধান্ত গ্রহন করলেও পর্যাপ্ত সুযোগ সুবিধার অভাবে তা বন্ধ হয়ে যায়, শুধু কিছু বেসরকারি প্রতিষ্ঠানেই শিক্ষা কার্যক্রম চলমান আছে অনলাইন ক্লাসের মাধ্যমে। শিক্ষার্থীদের শিক্ষা কার্যক্রম চালিয়ে যাওয়ার কথা ভেবেই একজন শিক্ষার্থী একটি ল্যাপটপ (ওয়ান স্টুডেন্ট ওয়ান ল্যাপটপ) কর্মসূচি চালুর কথা ভাবছে সরকার।

এতে শিক্ষার্থীরা অনেক সুযোগ সুবিধা পাবে। বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ের ৪০ লাখের বেশি শিক্ষার্থীকে ঘরে বসেই শিক্ষাগ্রহণের সুবিধা দিতে ‘ওয়ান স্টুডেন্ট ওয়ান ল্যাপটপ, ওয়ান ড্রিম’ কর্মসূচি এবং কম মূল্যের ইন্টারনেট সুবিধা দেয়ার জন্য বেসরকারি প্রতিষ্ঠানগুলোর সঙ্গে আলোচনা চালিয়ে যাচ্ছে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়। গ্রাম পর্যায়ে ইন্টারনেট পৌছেদিতে ইডিসি প্রকল্প হাতে নেয়া হচ্ছে হচ্ছে বলে জানিয়েছেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনায়েদ আহমেদ পলক ।

গত মঙ্গলবার বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ের নিয়মিত শ্রেণি কার্যক্রম এবং সরকারি-বেসরকারি প্রশিক্ষণ প্রদানে প্রতিষ্ঠানসমূহের নিয়মিত প্রশিক্ষণ কার্যক্রম ডিজিটাল মাধ্যমে কার্যকরী ও সহজ উপায়ে চলমান রাখতে ‘ভার্চুয়াল ক্লাস’ প্ল্যাটফর্মের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সভাপতির বক্তব্যে এসব কথা বলেন প্রতিমন্ত্রী। এসময় ভার্চুয়াল সুবিধা কাজে লাগিয়ে জ্ঞান, শিক্ষা ও উদ্ভাবন সবার জন্য উন্মুক্ত করার আহ্বান জানান আইসিটি প্রতিমন্ত্রী মন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক।

একইসাথে শিক্ষাগ্রহণে সবাই যেন ইন্টারনেটে সংযুক্ত হতে পারেন এবং ল্যাপটপ বা স্মার্টফোন কিনতে পারেন এ জন্য সুলভ মূল্যের কিস্তি সুবিধা চালু করতে আইসিটি বিভাগ উদ্যোগ গ্রহণ করবে বলেও জানিয়েছেন তিনি।

আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেন, প্রাথমিক থেকে শুরু করে বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ে আইসিটি ইন এ্যডুকেশন এবং আইসিটি এড্যুকেশন নিয়ে আমাদের কাজ করতে হবে। এর মাধ্যমে আমরা সাড়ে ৪ কোটি তরুণকে আইসিটির সঙ্গে সম্পৃক্ত করতে পারবো।পরবর্তীতে এরাই ভবিষ্যত বাংলাদেশ গড়ার সৈনিক হবে।

 

সর্বশেষ সংবাদ