নওগাঁয় নতুন করে আবার করোনা শনাক্ত ৬৭ জনের

মোঃ আতিকুর হাসান সজীব, নওগাঁ,প্রতিনিধিঃ নওগাঁর আত্রাইয়ে করোনা উপসর্গ নিয়ে মফিজ উদ্দিন (৬০) নামে এক ব্যক্তির মৃত্যুর ৮দিন পর করোনায় আক্রান্তের রিপোর্ট আসেছে। এ নিয়ে স্থানীয়দের মধ্যে আতঙ্ক দেখা দিয়েছে। এদিকে দিনদিন করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত এবং মৃত্যুর সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে। গত ২৪ ঘন্টায় জেলায় আরও নতুন করে ৬৭ ব্যক্তির শরীরে কোভিড-১৯ করোনায় শনাক্ত হয়েছে। জেলায় মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়ালো ৪৫১ জন আর মোট মৃত্যুর হয়েছে ৬ জনের। সিভিল সার্জন ডা. আলাউদ্দিন আলাল জানান, আত্রাই উপজেলার ভবানীপুর গ্রামের মফিজ উদ্দিন করোনার উপসর্গ জ্বর ও পেটের সমস্যা নিয়ে ১৯ জুন আত্রাই উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি হন। এরপর করোনার সন্দেহ দেখা দেওয়ায় পরদিন ২০ জুন তার নমুনা সংগ্রহ করা হয়। হাসপাতালে চিকিৎসাসেবা দেওয়ায় জ্বর ও পেটের সমস্যা ভালো হয়ে যাওয়ায় পরদিন সকালে গ্রামের বাড়ি চলে যান। ২১জুন সন্ধ্যায় তিনি মারা যান। গত রবিবার ২৮জুন রাতে আসা করোনার রিপোর্টে তিনি আক্রান্ত ছিলেন এমন রিপোর্ট হাতে আসে। ইত্যে মধ্যে মফিজ উদ্দিনের সংস্পর্ষে আসা সকল ব্যক্তিদের কোয়ারেন্টাইনে থাকার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। স্থানীয়দের আতঙ্কিত না হওয়ার পরামর্শ দিয়ে সিভিল সার্জন আরো বলেন, সরকারি নির্দেশণা মেনে চলতে অনুরোধ করেন। সিভিল সার্জন অফিস সূত্রে জানা গেছে, নতুন শনাক্তদের মধ্যে ৩ জন পুলিশ, ২ জন নার্স, ২ জন মেডিক্যাল এ্যাসিস্ট্যান্ট এবং ১ জন স্বাস্থ্য পরিদর্শক রয়েছেন। নওগাঁর ডেপুটি সিভিলসার্জন ডাঃ মঞ্জুর মোর্শেদ জানান, রবিবার বিকেলে ও রাতে ঢাকার আইইডিসিইআর থেকে ২৩২টি নমুনার রিপোর্ট আসে। এতে নতুন করে ৬৭ ব্যক্তির শরীরে কোভিড-১৯ করোনায় শনাক্ত হয়েছে। গত ২৪ ঘন্টায় সদর উপজেলায় ২৬ জন, রাণীনগরে ১ জন, আত্রাইয়ে ৩ জন, মহাদেবপুরে ৯ জন, বদলগাছিতে ৮ জন, পত্নীতলায় ২ জন, ধামইরহাটে ২ জন এবং পোরশায় ১৬ জন। গত ২৪ ঘন্টায় জেলায় নতুন করে কোয়ারেন্টাইনে নেওয়া হয়েছে ২৪২ জনকে। এদের মধ্যে সদরে ৯১ জন, রাণীনগরে ৩ জন, মহাদেবপুরে ১৩ জন, মান্দায় ২১ জন, বদলগাছিতে ১৯ জন, পত্নীতলায় ১৪ জন, ধামইরহাটে ২৭ জন, নিয়ামতপুরে ২ জন, সাপাহারে ৪১ জন এবং পোরশায় ১১জন। এই সময়ে হোম কোয়ারেন্টাইন থেকে ছাড়পত্র পেয়েছেন ৬৩ জন। বর্তমানে কোয়ারেন্টাইনে রয়েছেন ১৬০১ জন। এ সময় সুস্থ্য হয়েছেন ৯ জন এবং মোট সুস্থ্য হয়েছেন ২১৪ জন।