ধুনটে বন্যা পরিস্থিতি আরও অবনতি যমুনার পানি বিপদসীমার ৬৭ সে.মি উপরে

কারিমুল হাসান লিখন ধুনটঃ বগুড়ার ধুনটে বন্যা পরিস্থিতি আরও অবনতি হয়েছে। অতি বৃষ্টি ও পাহাড়ি ঢলে উপজেলার গোসাইবাড়ি ও ভান্ডারবাড়ি ইউনিয়নে পানিবন্দি হয়ে পড়েছেন কয়েক হাজার মানুষ।
মঙ্গলবার সারিয়াকান্দির মথুরাপাড়া পয়েন্টে বিকাল পর্যন্ত বিপদসীমার ৬৭ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে যমুনার পানি।
জানা গেছে, উপজেলার ভান্ডারবাড়ি ইউনিয়নের আটাচর, শহড়াবাড়ি, বৈশাখী-চর,শিমুলবাড়ি ,কয়াগাড়ি ,বানিয়াজান, ভান্ডারবাড়ি গ্রাম এবং গোসাইবাড়ি ইউনিয়নের দড়িপাড়া, আওলাকান্দী, গোদাখালী, চন্দনবাইশা গ্রাম তলিয়ে গেছে। এতে কয়েক হাজার মানুষ পানি বন্দি হয়ে পড়েছে। নষ্ট হয়েছে শত শত হেক্টর আবাদী ফসল। পরিবার ও গবাদি পশু নিয়ে বিপাকে পড়েছে এ অঞ্চলের মানুষ। লোকজন বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধে আশ্রয় নিলেও বিশুদ্ধ পানি ও ল্যাট্রিনের চরম সংকট দেখা দিয়েছে।
ভান্ডারবাড়ি ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান আতিকুল করিম আপেল জানান, ভান্ডারবাড়ির চরাঞ্চলে আষাঢ়ের অতি বৃষ্টি ও পাহাড়ি ঢলে অতিরিক্ত বন্যার পানি প্রবেশ করেছে। এতে ইউনিয়নের আটাচর, শহড়াবাড়ি, বৈশাখী-চর ,শিমুলবাড়ি ,কয়াগাড়ি ,বানিয়াজানে অসংখ বাড়ি-ঘরে বন্যার পানি প্রবেশ করেছে। কৃষকের ফসল পানির নিচে তলিয়ে গেছে। উপজেলা প্রশাসন থেকে তাণ বরাদ্দ দিয়েছেন ।
বগুড়া পানি উন্নয়ন বোড্রের (পাউবো) নির্বাহী প্রকৌশলী মাহবুবুর রহমান বলেন, যমুনার পানি বাড়তি মুখে এলাকায় বাঁধ গুলো পর্যবেক্ষণে আছে। ভাঙ্গা এলাকায় জিও ব্যাগ ফেলা হচ্ছে।

সর্বশেষ সংবাদ