বৃষ্টি জোবাইর আহমেদ সিয়াম

জোবাইর আহমেদ সিয়াম, সরকারি কালিগঞ্জ মাধ্যমিক বিদ্যালয়,নবম শ্রেণি

 

মেঘ হয়, বাতাস বয়, বিদ্যুৎ চমকায় যখন,
মনে হয় প্রকৃতি কয়, বৃষ্টি আসবে তখন।
রবির ছলনে, তিমির গগনে মেঘে মেঘে শুধু ঘর্ষণ,
বাদলের গলনে, প্রকৃতির বরণে শুরু হয়ে যায় বর্ষণ।
তুমুল বর্ষণে, ভিজে যায় সর্বত্র ভিজে যায় গাছের পাতা,
ঘরের বাইরে গেলে অন্যত্র, লাগবে একটা ছাতা।
কখনো গুড়িগুড়ি কখনো মুষলধারে বৃষ্টি হয় আষাঢ় শ্রাবনে।
বৈশাখের কালবৈশাখী ঝড়ে ভিজে যায় প্রকৃতির চরণ।
গরমের পর ঠান্ডার অনুভূতি নিয়ে আসে এই বৃষ্টি।
ক্লান্তির পর ফেরায় গতি, খোদা তায়ালার কী সৃষ্টি!
ধরিত্রীর সর্বাঙ্গে রোমাঞ্চ জাগে, সিগ্ধ শীতল ধারা বর্ষণে।
মনের মাঝে উচ্ছ্বাস লাগে, মাঝিমাল্লার অপূর্ব সারিগানে।
প্রকৃতির সজীবতা, জমির উর্বরতা বেড়ে যায় বৃষ্টির ফলে।
ফসলের শ্যামলতা, কৃষকের সফলতা মনকে ভরিয়ে তোলে।
কখনো আবার এমনও হয়, অতিবৃষ্টির ফলে বন্যা।
চারিদিকে শুধু অশান্তি রয়, ঘরে ঘরে শুধু কান্না।
বৃষ্টির আবার অভাব হলে, নেমে আসে খরা।
ফসল মরে বিনা জলে, শুকিয়ে যায় ধরা।
বৃষ্টি হলো হৃদয়ের ছাপ, সুখ দুঃখের এক মেলা।
কখনো আশীর্বাদ, কখনো অভিশাপ এ কেমন আজব খেলা!