রাবি শিক্ষার্থীদের চারদফা দাবীতে মানববন্ধন

এস.এম.আল-আমিন,রাবি প্রতিনিধি:বিশ্ববিদ্যালয়ের হল ডাইনিংয়ের খাবারের মান বৃদ্ধি, বাসের ট্রিপ বাড়ানোসহ চারদফা দাবিতে মানববন্ধন করেছে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) সাধারণ শিক্ষার্থীরা। গতকাল রোববার বেলা ১২ টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের প্যারিস রোডে এ কর্মসূচি পালন করেন তারা। শিক্ষার্থীদের দাবিগুলো হল- সপ্তাহে প্রতিদিন কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগার খোলা রাখা, হল ডাইনিংয়ের খাবারের মান বৃদ্ধি, বাসের ট্রিপ বাড়ানো ও ক্যাম্পাসে নিরাপত্তা বৃদ্ধি।
মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, যেখানে প্রতিনিয়ত বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীর সংখ্যা বাড়ছে সেখানে কোন যুক্তিতে, কার কথায় প্রশাসন বাসের ট্রিপ কমিয়েছে। বাসের ট্রিপ কমানোর ফলে দূর-দূরান্তের শিক্ষার্থীদের ব্যাপক ভোগন্তিতে পড়তে হচ্ছে। হলের ডাইনিংয়ে খাবারের দাম বাড়িয়েছে ঠিকই কিন্তু খাবারের মান বাড়ানো হয়নি। প্রশাসনের কাছে জানতে চাই আপনারা কখনো কি এসব খাবার খেয়ে দেখেছেন?
বক্তারা আরও বলেন, লাইব্রেরি হলো আমাদের জ্ঞানের ভান্ডার। বিগত দিনে লাইব্রেরি প্রতিদিন খোলা ছিল সেখানে প্রশাসন কোন যুক্তিতে সপ্তাহে দু’দিন লাইব্রেরি বন্ধ রাখছে। আমরা বিশ^বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা দেশের প্রথম শ্রেণির নাগরিক। ক্লাস-পরীক্ষা বাদ দিয়ে আমরা আজ রাস্তায় সেমেছি আমাদের যৌক্তিক দাবি আদায়ের জন্য। বিশ্ববিদ্যালয়ে আমরা প্রয়োজনীয় সুযোগ-সুবিধা না পেলে জাতিকে কি দিব?
ক্যাম্পাসে নিরাপত্তা বৃদ্ধির দাবি জানিয়ে বক্তারা বলেন, সন্ধ্যা হওয়ার সাথে সাথে ক্যাম্পাসে চুরি-ছিনতাই বেড়ে যায়। কিন্তু এ বিষয়ে প্রশাসন উদাসীন। এই ক্যাম্পাস আমাদের, মাঠ আমাদের। এখানে বহিরাগতদের চোখ রাঙানো আমরা মানব না। প্রশাসনের কাছে আমরা আকুল আবেদন জানাচ্ছি বহিরাগতদের অনুপ্রবেশ বন্ধ করুন। অন্যথায় আমরা নিজেরাই কোন কঠোর ব্যবস্থা নিব। মানববন্ধন থেকে দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দেন শিক্ষার্থীরা। এছাড়াও মানববন্ধন শেষে তাদের চার দফা দাবিতে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য বরাবর একটি স্মারকলিপি প্রদান করেন তারা।
মানববন্ধনে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগের সহ¯্রাধিক শিক্ষার্থী অংশ গ্রহণ করেন। এছাড়াও বিশ্ববিদ্যালয় প্রগতিশীল জোট, বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোট, কেন্দ্রীয় সাংস্কৃতিক জোট সংহতি জানায়।
বিশ্ববিদ্যালয়ের ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগের চতুর্থ বর্ষেও শিক্ষার্থী মাসুদ রানার সঞ্চালনায় মানববন্ধনে বক্তব্য দেন ছাত্র ফেডারেশনের সভাপতি ইংরেজি বিভাগের শিক্ষার্থী কিংশুক কিঞ্জল, নৃবিজ্ঞান বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী শাহরিয়ার আলম, ফলিত গণিত বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী শাহাদাত হোসেন, ইনফরমেশন এন্ড কমিউনিকেশন ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী এস. এম. মিঠু, অর্থনীতি বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী ইশতিয়াক আহমেদ, গণিত বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী আহসান হাবিব প্রমুখ।
প্রসঙ্গত, গত ১৬ জুলাই থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের অফিসের নতুন সময়সূচি কার্যকর হয়। পরিবর্তিত সময়সূচি অনুযায়ী শুক্রবার ও শনিবার বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগার বন্ধ থাকছে। একই দিনে বাসের নতুন সময়সূচি কার্যকর হয়। পরিবর্তিত সময়সূচি অনুযায়ী আগের তুলনায় বিশ্ববিদ্যালয়ের বাসের ট্রিপ ৮ টি থেকে কমিয়ে ৪ টি করা হয়। অন্যদিকে, গত ৪ জুলাই প্রাধ্যক্ষ পরিষদের ‘ডাইনিং সুষ্ঠুভাবে পরিচালনা ও মিলচার্জ বৃদ্ধি’ বিষয়ক উপ-কমিটির সভায় খাবারের দাম বৃদ্ধির সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। উপ-কমিটির সভায় দুপুরের খাবারের দাম ২০ টাকার পরিবর্তে ২৪ টাকা এবং রাতে ১৬ টাকার পরিবর্তে ১৮ টাকা করার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। দাম বাড়ালেও খাবারের মান আগের মতই রয়েছে বলে শিক্ষার্থীদের অভিযোগ।#