বাংলাদেশে এখন কোনো গণতন্ত্র নেই, সংবিধান নেই-এ্যাড. ফজলুর

জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরাম কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য সচিব এ্যাড. ফজলুর রহমান বলেন, আজকে আমাদের একটাই লক্ষ্য হওয়া উচিত দেশে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করবার জন্য যিনি গণতন্ত্রের পতাকা তার সমস্ত রাজনৈতিক জীবনে তুলে ধরেছেন, সেই দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্ত করতে হবে, গণতন্ত্রকে মুক্ত করতে হবে, আমাদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান যিনি নির্বাসিত হয়ে আছেন, তাকে দেশে ফিরিয়ে আনতে হবে। এককথায় এখন এটা পুরোপুরিভাবে গণতন্ত্রবিহীন একটা ফ্যাসিস্ট রাষ্ট্রে পরিণত হতে যাচ্ছে। কর্তৃত্ববাদীও বলি না। আজকে সমস্ত বিশ্বেই আমার কাছে মনে হয় যে, একটা নষ্ট সময় যাচ্ছে। আজকে কর্তৃত্ববাদীতা, অন্যের অধিকার হরণ করা, অন্যের ওপর অত্যাচার-নির্যাতন করা-এটা একটা প্রবণতা বেড়েই চলেছে প্রতিদিনই। গতকাল শনিবার দুপুরে বগুড়া আইনজীবী সমিতি মিলনায়তনে জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরাম বগুড়া ইউনিটের দ্বি-বার্ষিক সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। ফজলুর বলেন, আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনা ভোট ছাড়া আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে ব্যবহার করে নিজেকে প্রধানমন্ত্রী করেছেন। আজকে বাংলাদেশেও একটা শক্তি যে শক্তি জাতীয় ও আন্তর্জাতিক চক্রান্তের মধ্য দিয়ে আমাদের দেশে গণতন্ত্রকে ধবংস করেছে, আমাদের দেশের মানু্ষরে অধিকার গুলোকে হরণ করেছে এবং আমাদের যে ১৯৭১ সালে স্বাধীনতা যুদ্ধের যে মূল চেতনা ছিলো সেই চেতনাকে ধবংস করে দিয়েছে। তিনি আরো বলেন, ‘আমি বারবার বলছি, এই সরকার আর বেশিদিন নেই, চারিদিক থেকে কেন জানি এই সরকারের পতনের আওয়াজ পাওয়া যাচ্ছে। কারণ এই সরকার তো নিজেই একটা নাটকবাজ সরকার। আওয়ামী লীগ এবং আওয়ামী লীগের প্রধানমন্ত্রী যা বলেন, যা করেন, যা প্রতিশ্রুতি দেন সেটা মানুষ নাটক বলেই মনে করে। জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরাম বগুড়া আয়োজিত নির্বাচন পরিচালনা কমিটির সদস্য বগুড়া জেলা বিএনপির যুগ্ম আহ্বায়ক এ্যাড. সাইফুল ইসলামের সভাপতিত্বে এবং নির্বাচন পরিচালনা কমিটির সদস্য এ্যাড. বাসেদ এর পরিচালনায় দ্বি-বার্ষিক সম্মেলনের উদ্ভাধক হিসাবে বক্তব্য রাখেন জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরাম কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম আহ্বায়ক ব্যারিষ্টার কায়ছার কামাল, বিশেষ অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য বগুড়া পৌর মেয়র অ্যাডভাকেট একেএম মাহবুবর রহমান, বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য সাবেক এমপি মোঃ হেলালুজ্জামান তালুকদার লালু, বগুড়া জেলা বিএনপির আহবায়ক ও বগুড়া-৬ আসনের সংসদ সদস্য গোলাম মোহাম্মদ সিরাজ, সুপ্রিম র্কোট আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক ব্যারিষ্টার রুহুল কুদ্দুস কাজল, জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরাম কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য এ্যাড. গাজী কামরুল ইসলাম সজল। এসময় উপস্থিত ছিলেন বগুড়া জেলা বিএনপির যুগ্ম আহ্বায়ক ফজলুল বারী তালুকদার বেলাল, জেলা বিএরপি সাবেক সভাপতি ও আহ্বায়ক কমিটির সদস্য রেজাউল করিম বাদশা, বিএনপির জাতীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য আলী আজগর তালুকদার হেনা, জেলা বিএনপির আহ্বায়ক কমিটির সদস্য মাহবুবর রহমান বকুল, এম আর ইসলাম স্বাধীন, হামিদুল হক চৌধুরী হিরু, এ্যাড. শাহজাদী লায়লা, কেএম খায়রুল বাশার, সহিদ উন নবী সালাম, শেখ তাহা উদ্দিন নাইন, মাফতুন আহমেদ খান রুবেল, সাইদুজ্জামান শাকিল, মনিরুজ্জামান মনির, জেলা যুবদলের আহ্বায়ক খাদেমুল ইসলাম খাদেম, যুগ্ম আহবায়ক জাহাঙ্গীর আলম, জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের আহবায়ক এ বি এম মাজেদুর রহমান জুয়েল, যুগ্ম আহবায়ক সরকার মকুল, জেলা ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক নূরে আলম সিদ্দিকী রিগ্যানসহ জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরাম কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ও জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরাম বগুড়া নেতৃবৃন্দ। জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরাম বগুড়া ইউনিটের দ্বি-বার্ষিক সম্মেলনে ভোটের মাধ্যমে সভাপতি নির্বাচিত হন এ্যাড. আলী আসগার, সাধারণ সম্পাদক এ্যাড. মোজাম্মেল হক, যুগ্ম সম্পাদক এ্যাড. মোঃ মোসলেম উদ্দিন লিটন, সাংগঠনিক সম্পাদক এ্যাড. আতাউর রহমান অতিক এবং বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় সহ সভাপতি পদে নির্বাচিত হন এ্যাড. সুফিয়া বেগম কোহিনুর।
জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরাম কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য সচিব এ্যাড. ফজলুর রহমান বলেন, আজকে আমাদের একটাই লক্ষ্য হওয়া উচিত দেশে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করবার জন্য যিনি গণতন্ত্রের পতাকা তার সমস্ত রাজনৈতিক জীবনে তুলে ধরেছেন, সেই দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্ত করতে হবে, গণতন্ত্রকে মুক্ত করতে হবে, আমাদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান যিনি নির্বাসিত হয়ে আছেন, তাকে দেশে ফিরিয়ে আনতে হবে। এককথায় এখন এটা পুরোপুরিভাবে গণতন্ত্রবিহীন একটা ফ্যাসিস্ট রাষ্ট্রে পরিণত হতে যাচ্ছে। কর্তৃত্ববাদীও বলি না। আজকে সমস্ত বিশ্বেই আমার কাছে মনে হয় যে, একটা নষ্ট সময় যাচ্ছে। আজকে কর্তৃত্ববাদীতা, অন্যের অধিকার হরণ করা, অন্যের ওপর অত্যাচার-নির্যাতন করা-এটা একটা প্রবণতা বেড়েই চলেছে প্রতিদিনই। গতকাল শনিবার দুপুরে বগুড়া আইনজীবী সমিতি মিলনায়তনে জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরাম বগুড়া ইউনিটের দ্বি-বার্ষিক সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। ফজলুর বলেন, আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনা ভোট ছাড়া আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে ব্যবহার করে নিজেকে প্রধানমন্ত্রী করেছেন। আজকে বাংলাদেশেও একটা শক্তি যে শক্তি জাতীয় ও আন্তর্জাতিক চক্রান্তের মধ্য দিয়ে আমাদের দেশে গণতন্ত্রকে ধবংস করেছে, আমাদের দেশের মানু্ষরে অধিকার গুলোকে হরণ করেছে এবং আমাদের যে ১৯৭১ সালে স্বাধীনতা যুদ্ধের যে মূল চেতনা ছিলো সেই চেতনাকে ধবংস করে দিয়েছে। তিনি আরো বলেন, ‘আমি বারবার বলছি, এই সরকার আর বেশিদিন নেই, চারিদিক থেকে কেন জানি এই সরকারের পতনের আওয়াজ পাওয়া যাচ্ছে। কারণ এই সরকার তো নিজেই একটা নাটকবাজ সরকার। আওয়ামী লীগ এবং আওয়ামী লীগের প্রধানমন্ত্রী যা বলেন, যা করেন, যা প্রতিশ্রুতি দেন সেটা মানুষ নাটক বলেই মনে করে। জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরাম বগুড়া আয়োজিত নির্বাচন পরিচালনা কমিটির সদস্য বগুড়া জেলা বিএনপির যুগ্ম আহ্বায়ক এ্যাড. সাইফুল ইসলামের সভাপতিত্বে এবং নির্বাচন পরিচালনা কমিটির সদস্য এ্যাড. বাসেদ এর পরিচালনায় দ্বি-বার্ষিক সম্মেলনের উদ্ভাধক হিসাবে বক্তব্য রাখেন জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরাম কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম আহ্বায়ক ব্যারিষ্টার কায়ছার কামাল, বিশেষ অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য বগুড়া পৌর মেয়র অ্যাডভাকেট একেএম মাহবুবর রহমান, বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য সাবেক এমপি মোঃ হেলালুজ্জামান তালুকদার লালু, বগুড়া জেলা বিএনপির আহবায়ক ও বগুড়া-৬ আসনের সংসদ সদস্য গোলাম মোহাম্মদ সিরাজ, সুপ্রিম র্কোট আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক ব্যারিষ্টার রুহুল কুদ্দুস কাজল, জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরাম কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য এ্যাড. গাজী কামরুল ইসলাম সজল। এসময় উপস্থিত ছিলেন বগুড়া জেলা বিএনপির যুগ্ম আহ্বায়ক ফজলুল বারী তালুকদার বেলাল, জেলা বিএরপি সাবেক সভাপতি ও আহ্বায়ক কমিটির সদস্য রেজাউল করিম বাদশা, বিএনপির জাতীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য আলী আজগর তালুকদার হেনা, জেলা বিএনপির আহ্বায়ক কমিটির সদস্য মাহবুবর রহমান বকুল, এম আর ইসলাম স্বাধীন, হামিদুল হক চৌধুরী হিরু, এ্যাড. শাহজাদী লায়লা, কেএম খায়রুল বাশার, সহিদ উন নবী সালাম, শেখ তাহা উদ্দিন নাইন, মাফতুন আহমেদ খান রুবেল, সাইদুজ্জামান শাকিল, মনিরুজ্জামান মনির, জেলা যুবদলের আহ্বায়ক খাদেমুল ইসলাম খাদেম, যুগ্ম আহবায়ক জাহাঙ্গীর আলম, জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের আহবায়ক এ বি এম মাজেদুর রহমান জুয়েল, যুগ্ম আহবায়ক সরকার মকুল, জেলা ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক নূরে আলম সিদ্দিকী রিগ্যানসহ জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরাম কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ও জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরাম বগুড়া নেতৃবৃন্দ। জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরাম বগুড়া ইউনিটের দ্বি-বার্ষিক সম্মেলনে ভোটের মাধ্যমে সভাপতি নির্বাচিত হন এ্যাড. আলী আসগার, সাধারণ সম্পাদক এ্যাড. মোজাম্মেল হক, যুগ্ম সম্পাদক এ্যাড. মোঃ মোসলেম উদ্দিন লিটন, সাংগঠনিক সম্পাদক এ্যাড. আতাউর রহমান অতিক এবং বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় সহ সভাপতি পদে নির্বাচিত হন এ্যাড. সুফিয়া বেগম কোহিনুর।