এগিয়ে আসছে আজারি সেনা, শহর দখলের লড়াই শুরু

স্বশাসিত বিতর্কিত অঞ্চল নাগার্নো-কারাবাখ দখলে অভিযান আরো তীব্র করেছে আজারবাইজানের সামরিক বাহিনী। সোমবার পরপর চারটি বিস্ফোরণে কেঁপে ওঠে অঞ্চলটির রাজধানী স্টেপানকার্ট শহর। তড়িঘড়ি ‘বোমা শেল্টার’-এ আশ্রয় নেন বাসিন্দারা। সূত্রের খবর, শুরু হয়েছে শহর দখলের লড়াই।

আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম স্পুটনিক জানিয়েছে, নাগার্নো-কারাবাখের দখল নিয়ে অঞ্চলটির দখলদার বাহিনী ‘আর্টসাক ডিফেন্স আর্মি’র সঙ্গে তুমুল সংঘর্ষ চলছে আজারবাইজানের সরকারি বাহিনীর। পাশাপাশি, আর্মেনিয়ার সঙ্গেও চলছে লড়াই।

সম্প্রতি, যুদ্ধবিরতির প্রস্তাবে ইয়েরেভান সম্মতি দিলেও নিজের অবস্থান বদলাতে রাজি হয়নি বাকু। ফলে দু’পক্ষের মধ্যে চলছে তুমুল সংঘর্ষ।

স্থানীয় প্রশাসন জানিয়েছে, রোববার স্টেপানকার্ট ও সুসা শহরে গোলাবর্ষণে নিহত হয়েছেন চার নাগরিক। আহত হয়েছেন ১০ জন।

তবে রাজধানী রক্ষায় মরণপণ লড়াই চলবে বলে জানিয়েছে, আর্টসাক বাহিনীর সদস্যরা। জানা গেছে, রাজধানী স্টেপানকার্ট রক্ষায় মিলিশিয়াদের মদত দিচ্ছে আর্মেনিয়ার বাহিনী।

উল্লেখ্য, ২৭ সেপ্টেম্বর নাগার্নো-কারাবাখ নিয়ে শুরু হওয়া যুদ্ধে দু’পক্ষের বেশ কিছু ট্যাঙ্ক, হেলিকপ্টার ও ড্রোন ধ্বংস হয়েছে। দু’পক্ষের কয়েকশো সেনার পাশাপাশি বহু অসামরিক নাগরিক হতাহত হয়েছেন।

আর্মেনিয়া হুমকি দিয়েছে, প্রয়োজনে পরমাণু অস্ত্রবাহী দূরপাল্লার রুশ ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবহার করা হবে। অধুনা বিলুপ্ত সোভিয়েত ইউনিয়নের দুই সদস্য দেশের লড়াইয়ে ইতোমধ্যেই জড়িয়ে পড়েছে বিশ্বের বেশ কিছু দেশ।

মুসলিম রাষ্ট্র আজারবাইজানকে প্রকাশ্যে সমর্থন জানিয়েছে তুরস্ক ও পাকিস্তান। অন্যদিকে, খ্রিস্টান সংখ্যাগরিষ্ঠ আর্মেনিয়ার প্রতি ঝুঁকে রয়েছে আমেরিকা, ফ্রান্স-সহ পশ্চিমী দুনিয়া এবং রাশিয়া।

সর্বশেষ সংবাদ