করোনায় বার্সার ক্ষতি ৩ হাজার কোটি টাকা

বার্ষিক আয়-ব্যয়ের হিসাব প্রকাশ করল স্প্যানিশ ক্লাব বার্সেলোনা। ক্লাবটি জানিয়েছে, করোনায় ২০১৯-২০ আর্থিক বছরে তাদের ক্ষতি অন্তত ৯৭ মিলিয়ন ইউরো।
একইসঙ্গে মহামারি এই ভাইরাসের কারণে আরো অন্ততঃ ২০৩ মিলিয়ন ইউরো রাজস্ব হারিয়েছে তারা। সবমিলিয়ে অংকটা ৩০০ মিলিয়ন। বাংলাদেশি অংকে ৩০০০ কোটি টাকারও বেশি!

এ বছর বার্সার মোট আয় ৮৫৫ মিলিয়ন ইউরো। ক্লাবটি বলছে, এবছর তারা রেকর্ড আয় করতে পারতো। কমপক্ষে ১ বিলিয়ন ইউরো আয় করার সুযোগ ছিল বলে দাবি ক্লাবটির। তবে করোনার কারণে বঞ্চিত হয়েছে তারা।

ফুটবলার ও কোচিং স্টাফের বেতন কর্তনসহ আরো নানাভাবে ৭৪ মিলিয়ন খরচ কমিয়েছে বার্সা। তারপরও আর্থিক সংকট কাটিয়ে উঠতে হিমশিম খেতে হচ্ছে ইউরোপের অন্যতম শীর্ষ ধনী ক্লাবটিকে।

এক বার্তায় ক্লাবটি জানিয়েছে, করোনা পুরো বিশ্বের ক্রীড়াঙ্গনে ব্যাপক প্রভাব ফেলেছে। দীর্ঘদিন খেলাধুলা বন্ধ থাকায় সব শীর্ষ লিগের সব ক্লাবই ব্যাপক ক্ষতির মুখে পড়েছে। পরবর্তীতে খেলা শুরু হলেও ক্ষতি কাটানো যায়নি।

ইউরোপিয়ান ক্লাব অ্যাসোসিয়েশন (ইসিএ) বলছে, পুরো ইউরোপের ফুটবলে ক্ষতির পরিমানটা কমপক্ষে ৪ বিলিয়ন ইউরো। অন্যদিকে সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত ক্লাবগুলোর একটি বার্সেলোনা।

কেবল খেলা বন্ধ থাকায় কতোভাবেই না ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে বার্সেলোনা! বিবৃতিতে তারা বলছে, দর্শকবিহীন মাঠে খেলা হওয়ার কারণে আমাদের অনেক ক্ষতি হয়েছে। তবে করোনার কারণে কোনো পর্যটক বার্সেলোনায় না আসায় আমাদের ক্ষতিটা কয়েকগুণ বেড়েছে। কারণ পর্যটক না আসা মানে বার্সেলোনার মাঠে তাদের পা না পড়া, ক্যাম্প ন্যু পরিদর্শনে না আসা। এসবের কারণেও আমরা প্রচুর ক্ষতির মুখে পড়েছি।

কেবল সদ্যসমাপ্ত মৌসুমেই নয়, আগামী মৌসুমেও ক্ষতির মুখে পড়তে হবে বলে মনে করছে ক্লাব কর্তৃপক্ষ। তাই তো পরের মৌসুমেও আগের তুলনায় কম লক্ষ্য নিয়ে এগোচ্ছে তারা। আগামী মৌসুম থেকেও ৭৯১ মিলিয়ন আয়ের পরিকল্পনা বার্সেলোনার।