যারা জননেত্রী শেখ হাসিনার পদত্যাগ চায় তারা ধর্ষকদের বিচার চায় না-এস এম কামাল হোসেন

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও রাজশাহী বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত নেতা এস এম কামাল হোসেন বলেছেন, জননেত্রী শেখ হাসিনার সরকার আইনের শাসনে বিশ্বাসী। বঙ্গবন্ধুর কন্যা কখনও অন্যায়কে প্রশ্রয় দেন না। শুধুমাত্র ধর্ষণ নয়, সামান্যতম অপরাধ করলেও তিনি ছাড় দেন না। জননেত্রী শেখ হাসিনা রাজনীতি করেন বাংলাদেশর মানুষের জন্য। যারা আজকে ধর্ষণের ব্যাপারে মিছিল সমাবেশ করছে তারাই অতীতে ধর্ষণকারীদের রক্ষার অপচেষ্টা করেছে। আলোচিত ইয়াছমিন, ফাহিমা, পূর্ণিমা, শেফালী ধর্ষণের বিচার তারা করেনি। বরং ধর্ষণকারীদের পক্ষে অবস্থান নিয়েছিল এবং উল্লাস প্রকাশ করেছিল। জামায়াতে ইসলামী যখন ধর্ষণের বিচার চেয়ে মিছিল করে তখন জাতি লজ্জা পায়। তারা ধর্ষণের বিচার নয় বরং শেখ হাসিনার সরকারের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রে লিপ্ত। তারা চায় যে কোন পরিস্থিতির উদ্ভব ঘটিয়ে ঘোলা পানিতে মাছ শিকার করতে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বলেছেন ধর্ষণের সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদন্ড। যা আইন আকারে বাস্তবায়ন সময়ের ব্যাপার মাত্র। বাংলাদেশের মানুষ আওয়ামী লীগের সাথে ছিল, আছে এবং থাকবে। সোমবার বিকালে বগুড়ার আদমদীঘিতে উপজেলা আওয়ামী লীগের উদ্যোগে কর্মীসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি উপরোক্ত কথাগুলি বলেন। আদমদীঘি উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি আবু রেজা খানের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন বগুড়া জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মজিবর রহমান মজনু, সাধারণ সম্পাদক রাগেবুল আহসান রিপু, আসাদুর রহমান দুলু, এড. তবিবর রহমান তবি, মাশরাফী হিরো, সিরাজুল ইসলাম খান রাজু, রফিকুল ইসলাম রফিক, আনোয়ার হোসেন রানা, রেজাউল আশরাফ জিন্নাহ্্ প্রমুখ।