আদমদীঘিতে প্লাস্টিকের তৈরি মাদুর দেশের চাহিদা মিটিয়ে বিদেশে ও রপ্তানি হচ্ছে

মোঃ আতিকুর  হাসান (আদমদীঘি) প্রতিনিধিঃ বগুড়া আদমদীঘি উপজেলার সান্তাহার ইউনিয়নের বিভিন্ন হাটে-বাজারে প্লাস্টিকের  তৈরি   মাদুর   বিক্রির  ব্যাপক সাড়া পড়েছে । সপ্তাহে দুই দিন রবিবার ও বৃহস্পতিবার   ভোর  থেকে  দুপুর  পর্যন্ত খুচরা ও পাইকারি বেচা-কেনার ধুম পড়ে যায় এসব হাটে।সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে  সান্তাহার  ইউনিয়নের   হালালিয়া হাটে প্লাস্টিকের পাইপ তৈরির মিল স্থাপন হওয়ার   পর  থেকে  পাতি   দিয়ে  তৈরি মাদুরের   পাশা  পাশি  প্লাস্টিকের  তৈরি মাদুরের চাহিদা দিন দিন দিন বেড়েচলছে।সান্তাহার  ইউনিয়নের  সান্দিরা , তারাপুর, কাজিপুর,  ছাতনী – ঢেকড়া,  প্রান্তাথপুর সহ  বিভিন্ন  এলাকায়  শত -শত  বেকার তরুন-তরুনী এই মাদুর তৈরি করেবাজারে বিক্রি করে ভাল আয় করছে।এই শিল্পের সাথে  জড়িত  কাজিপুর   গ্রামের  বিপুল সরদার জানায় আমরা পারিবারিক ভাবে অনেক আগে থেকেই মাদুর তৈরি ও বিক্রি সাথে জড়িত । তবে  গত  তিন  বছর  ধরে আমি প্লাস্টিকের তৈরি মাদুর বিক্রি করে ভাল আয় করছি।রংপুর কাউনিয়া বাজার থেকে   আসা  এক   পাইকারি   ব্যবসায়ি জানান  সে   এখান  থেকে  মাদুর   কিনে খুলনায় নিয়ে গিয়ে বিক্রি করে ভাল লাভ করছে।এই ছাড়া প্লাস্টিকের তৈরি মাদুর এখন  দেশের  চাহিদা  মিটিয়ে বাহিরে ও রপ্তানি   হচ্ছে । এই  বিষয়ে   সান্তাহার   ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এরশাদুল হক টুলু জানান অত্র এলাকার প্লাস্টিকের তৈরি  মাদুর বিক্রি করে  শত- শত বেকার তরুন-তরুনি  তাদের  আয়ের হচ্ছে খুঁজে পেয়েছে।তাই আমি এই শিল্পের সফলতা কামনা করি।