স্বাধীনতার মার্কা নৌকাই দিতে পারে জনগন ও দেশের উন্নয়ন- এমপি গোপাল

এন.আই.মিলন, বীরগঞ্জ (দিনাজপুর) প্রতিনিধি- দিনাজপুর-১ আসনের জাতীয় সংসদ সদস্য মনোরঞ্জন শীল গোপাল বলেছেন, উন্নয়নের পক্ষের সকল মানুষকে নৌকা মার্কায় ভোট দিয়ে আবার আওয়ামী লীগ সরকার প্রতিষ্ঠায় আত্মনিয়োগ করতে হবে। দলীয় নেতা-কর্মীসহ সর্বস্তরের জনসাধারণকে যার যার অবস্থান থেকে নৌকা মার্কার বিজয়ের ব্যাপারে আন্তরিকভাবে কাজ করতে হবে। কারণ স্বাধীনতার মার্কা নৌকাই দিতে পারে জনগন ও দেশের উন্নয়ন।
৩১ জুলাই সোমবার রাতে দিনাজপুরের বীরগঞ্জ উপজেলার ৪নং পাল্টাপুর ইউনিয়নের খামার মধুবনপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের মাঠে অনুষ্ঠিত ভোগডোমা, মধুবনপুর, খামার মধুবনপুর গ্রামের ১ কোটি ২০ লক্ষ টাকা ব্যয়ে ৩৯১টি বাড়িতে বিদ্যুতায়নে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।
দিনাজপুর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-১ এর এলাকার পরিচালক মো. আইয়ুবুল ইসলাম মিন্টু এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন দিনাজপুর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-১ এর বীরগঞ্জ জোনাল অফিস’র ডেপুুটি জেনারেল ম্যানেজার মো. মমিনুর রহমান বিশ্বাস, বীর মুক্তিযোদ্ধা কৃষিবিদ আব্দুল খালেক, উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারন সম্পাদক মো. শামিম আলম ফিরোজ, ৪নং পাল্টাপুর ইউনিয়নের আওয়ামী লীগের সভাপতি মো. আব্দুর রহমান, ৪নং পাল্টাপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মো. তছলিমুল আলম, ৪নং পাল্টাপুর ইউনিয়নের আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক মো. মমিনুল ইসলাম। অনুষ্ঠানটির পরিচালনা করেন ৪নং পাল্টাপুর ইউনিয়নের আওয়ামী লীগের নেতা মো. বিপ্লব হোসেন।
এমপি গোপাল বলেন, মহান মুক্তিযুদ্ধের মাধ্যমে অর্জিত বাংলাদেশকে সোনার বাংলাদেশে পরিণত করার জন্য জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নিরন্তর প্রচেষ্ঠা চালিয়ে যাচ্ছেন। তাঁরই অংশ হিসেবে তিনি বিদ্যুৎ খাতকে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে উন্নয়নের কাজে হাত দিয়েছেন। সে কারণে কুইক-রেন্টালসহ বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণের মাধ্যমে তিনি যুগান্তকারী সিদ্ধান্ত গ্রহন করেছেন। যার ফলে ইতোমধ্যে সারাদেশে লোড শেডিং অনেকাংশে কমে গেছে। শীঘ্রই বাংলাদেশ হবে লোড-শেডিংমুক্ত আলোকিত বাংলাদেশ। শুধু তাই না, দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলে তিনি বিদ্যুতায়নের যে মহাযজ্ঞ সম্পাদন করেছেন, তাতে নিন্দুকেরা ছাড়া দেশ-বিদেশে সবাই তাঁর প্রশংসা করছেন। তাঁর গতিশীল উন্নয়নমূখী নেতৃত্বের কারনে তিনি বিভিন্ন আন্তর্জাতিক পুরস্কারও লাভ করছেন। তাই এই প্রধানমন্ত্রী তথা আওয়ামী লীগকে আবার ক্ষমতায় এনে অসমাপ্ত কাজ সমাপ্ত করতে হবে। আগামী নির্বাচন হবে, উন্নয়ন আর প্রতিহিংসার মধ্যে। আপনি উন্নয়ন চান নাকি প্রতিহিংসার রাজনীতির পুনরাবৃত্তি চান, সেটিই বিবেচিত হবে।