বগুড়া-রংপুর মহাসড়কে ৭ মাসে ৩২টি দূর্ঘটনায় ৩৬ জন নিহত

আরিফ উদ্দিন, গাইবান্ধা থেকেঃ বগুড়া-রংপুর মহাসড়কের গাইবান্ধার ৩২ কিলোমিটার অংশের পিচ ও কার্পেটিং উঠে যানবাহনে চলাচলরত মানুষের মরণ ফাঁদে পরিণত হয়েছে।
গোবিন্দগঞ্জ হাইওয়ে থানা সুত্রে জানা গেছে, গত ৭ মাসে গাইবান্ধার ৩২ কিলোমিটার এই মহাসড়কে ৩২টি দূর্ঘটনা ঘটে। এতে ৩৬জন মানুষ অকালে প্রাণ হারায়। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন গোবিন্দগঞ্জ হাইওয়ে থানার ওসি আবুল বাশার।
মহাসড়কের গুরুত্বপূর্ণ একটি অংশ গাইবান্ধার জেলার। ১৯৯২ সালে মহাসড়ক পাঁকাকরণ করা হয়। রংপুর বিভাগের প্রবেশ দ্বার গাইবান্ধা জেলার গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার কামারদহ ইউনিয়নের চাপড়ীগঞ্জ। তার অদুরে বগুড়া জেলার শিবগঞ্জ উপজেলার দেউলি ইউনিয়নের দু’সিমান নামক স্থান থেকে মহাসড়ক শুরু হয়ে গাইবান্ধার সাদুল্লাপুরে ধাপেরহাটের সিমানা পর্যন্ত। এই ৩২ কিলোমিটার মহাসড়কটি উত্তারাঞ্চলের ৮ জেলার একমাত্র যোগাযোগের বাহক। মহাসড়কটি সংস্কারের অভাবে বেহাল অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে। এর বিভিন্ন জায়গার পিচ ও কার্পেটিং উঠে বড়-বড় গর্তের সৃষ্টি হয়েছে।
এ বিষয়ে গাইবান্ধা সড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী আশাদুজ্জামানের সাথে যোগাযোগ করলে তিনি জানান, মহাসড়কের লেয়ার টু লেয়ার না মেলায় বৃষ্টির কারণে পানি পড়ে বিটুমিন নষ্ট হয়ে যায়। এ কারণে মহাসড়কের বিভিন্ন জায়গায় খালা-খন্দের সৃষ্টি হয়েছে। সংস্কারের জন্য সাধ্যমত চেষ্টা চালিয়ে যাওয়া হচ্ছে। এছাড়া মহাসড়কটি চার লেনে উন্নতি করার প্রকল্প প্রক্রিয়াধীন। অল্প সময়ের মধ্যে এ সমস্যার সমাধান হবে।