তানোরে আলুর বীজ ও সারের সংকট চরমে,দিশেহারা কৃষক

সারোয়ার হোসেন, তানোরঃ উত্তরবঙ্গের মধ্যে বরেন্দ্র অঞ্চল হিসেবে পরিচিত রাজশাহীর তানোর উপজেলা। এই উপজেলাতে যেমন ধান চাষ হয় তেমন আলু চাষও হয়। এছাড়াও চৈতালি আবাদ বেগুন মরিচ পটল টমেটো ছাড়াও বিভিন্ন প্রকারের আবাদের জন্য উপযোগী তানোর উপজেলার মাটি। যার ফলে বহিরাগত ব্যবসায়ীরা তানোরে জমি টেন্ডার নিয়ে করছেন আলু চাষ। এবার আলু চাষের জন্যে সহজে মিলছেনা ভালো আলুর বীজ ও বাজারে সার। জানা গেছে, হঠাৎ করে দেশে করোনা ভাইরাস সংক্রমণের জন্য লক ডাউন থেকে শুরু করে এখন পর্যন্ত চড়া মূল্য বিক্রি হচ্ছে আলু। আলুর দাম না কমাই এবার প্রায় কৃষক ঝুকি নিয়ে আলু চাষ করতে শুরু করেছে। এতে করে গতবারের চাইতে এ বছর আলুর বীজের দাম তিনগুণ বেশি হলেও আলু চাষ করতে পিছু তাকাচ্ছেন না আলু চাষিরা। অন্যদিকে আলু চাষের জন্যে সার নিয়ে দেখা দিয়েছে চরম সংকট। কোনো রকমে কৃষক আলুর বীজ পাচ্ছেন তো সার পাচ্ছেন না। আবার কেউ আলুর বীজ ও সার দুটোই পাচ্ছে না। যার জন্য সার ও আলুর বীজ সংকট নিয়ে দিশেহারা হয়ে উঠেছে তানোর উপজেলার আলু চাষিরা। তানোর উপজেলার বিভিন্ন আলুর মাঠ ঘুরে দেখা যাচ্ছে, একরের পর একর জমিতে আলু রোপন করছেন আলু চাষিরা। আবার কেউ আলু রোপনের জন্য জমি হালচাষ করে প্রস্তুত করে আলুর বীজ ও সার না পাওয়ায় বিঘাকে বিঘা জমি ফেলে রেখেছেন আলু চাষিরা। বিভিন্ন মাঠের আলু চাষিদের সাথে কথা বলে জানা গেছে, তানোরে কিছু কতিপয় আলুর বীজ ডিলার ও সার ডিলার মিলে এ সিন্ডিকেট তৈরি করেছেন। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক তানোর পৌর এলাকার বিভিন্ন কৃষক জানান, কৃষি অফিসের কর্মকর্তাদের সাথে লিয়াজু করে তানোর উপজেলার ৭টি ইউনিয়ন ও ২টি পৌরসভার সার ডিলাররা সিন্ডিকেট তৈরি করে বরাদ্দের সার তানোরে না এনে গোডাউন থেকেই বেশি দামে সার বাহিরে বিক্রি করে দিচ্ছেন ডিলাররা। আর এই সিন্ডিকেট বাহিনীর প্রধান হতা তানোর পৌর সদরের সার ব্যবসায়ী সৈয়ব আলী। সৈয়ব আলীর নেতৃত্বে সার সিন্ডিকেট তৈরি করে বরাদ্দের সার বাহিরের আলুর প্রজেক্ট ব্যবসায়ীদের কাছে আগেই বিক্রি করে দিচ্ছেন তারা। এমনকি সৈয়ব আলীর নেতৃত্বে তানোরে অবৈধ ভাবে বাহির থানা থেকে সার বীজ ঢোকানো হচ্ছে। যার ফলে সার সিন্ডিকেট বাহিনীর উপর উত্তেজিত হয়ে উঠেছে সাধারণ কৃষকরা। আবার আলুর বীজ ও সার পাওয়া গেলেও বস্তুা প্রতি গুনতে হচ্ছে ৪শ’থেকে ৬শ’টাকা করে বেশি। তবুও মিলছে টিএসপি, ডিএপি,পটাশিয়াম সার। কৃষি অফিস সূত্রে জানা গেছে, এবার তানোরে টিএসপি সারের কোন বরাদ্দ নেই। শুধু বরাদ্দ আছে ডিএপি, ইউরিয়া সার। তবে যে পরিমাণ সার বরাদ্দ আছে তাতে কৃষকের একটু সমস্যা দেখা দিতে পারে। কিন্তু সারের এ সংকট বেশি দিন থাকবেনা বলে জানালেও তানোর উপজেলার জন্য এবার কি পরিমাণ সার বরাদ্দ আছে তা জানাতে অপারগতা প্রকাশ করেন উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা।

সর্বশেষ সংবাদ