করোনাভাইরাস প্রতিরোধে জনসচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষে রাজশাহী জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে মাস্ক বিতরণ

আহসান হাবিব: রাজশাহী জেলা প্রশাসক আব্দুল জলিল বলেছেন, এখন আমরা করোনাভাইরাসের সেকেন্ড ওয়েভ অতিক্রম করছি। তাই যাতে কেউ করোনাভাইরাসে আক্রন্ত না হই সেজন্য আমাদের মাস্ক পরতে হবে। যাতে আমরা সুস্থ থাকতে পারি। আমাদের সুস্থ থাকতে মাস্ককে ভ্যাকসিন হিসেবে ব্যবহার করতে হবে। তাই অবহেলা না করে সুস্থ থাকতে মাস্ক পরি। করোনাভাইরাস প্রতিরোধে জনসচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষে রাজশাহী জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে মহানগরীতে মাস্ক বিতরণ ও জনসচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে আয়োজিত কর্মসূচিতে রাজশাহী জেলা প্রশাসক আব্দুল জলিলএসব কথা বলেন।

মঙ্গলবার (১৭ নভেম্বর) সকালে মহানগরীর সাহেববাজার জিরোপয়েন্টে এ কর্মসূচির উদ্বোধন করেন, রাজশাহী জেলা প্রশাসক আব্দুল জলিল।

‘নোমাস্ক, নোসার্ভিস’বিষয়ে আব্দুল জলিল আরো বলেন, আমরা সব সরকারি দপ্তর ও বিপণী বিতান গুলোতে ‘নোমাস্ক, নোসার্ভিস’কার্যক্রম চালু করেছি। এই কার্যক্রম চালু রাখতেও আমরা সর্বাত্মক চেষ্টাকরছি। যাতে কেউ মাস্ক না পওে বিপণী বিতানগুলোতে না আসে।

এসময় রাজশাহী জেলা পুলিশ সুপার এবিএম মাসুদ হোসেন ও সিভিলসার্জন ডা. এনামুল হক সহ প্রশাসনের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।
এর আগে মহানগরীর জিরোপয়েন্ট এলাকায় মাস্ক পরিধান না কওে চলাফেলার দায়ে কয়েকজনকে জরিমানা করে জেলা প্রশাসনের ভ্রাম্যমাণ আদালত।