গাইবান্ধায় বাশফোর-দলিত ও হরিজন জনগোষ্ঠীর মানববন্ধন-সমাবেশ

আরিফ উদ্দিন, গাইবান্ধা প্রতিনিধিঃ বাশফোর, দলিত ও হরিজন জনগোষ্ঠীর মানুষের হোটেল-রেঁস্তোরায় প্রবেশাধিকারের দাবীতে গাইবান্ধায় মানববন্ধন, সমাবেশ ও স্মারকলিপি প্রদান কর্মসূচি পালিত হয়েছে। মঙ্গলবার (১৭ নভেম্বর) সকালে বাংলাদেশ বাশফোর (হরিজন) কল্যান ঐক্য পরিষদ, বাংলাদেশ যুব হরিজন ঐক্য পরিষদ, দলিত ও বঞ্চিত জনগোষ্ঠী অধিকার আন্দোলন, জয়ভীম ছাত্র যুব ফেডারেশন, রবিদাস ফোরাম, রবিদাস পরিষদ যৌথভাবে এ কর্মসুচীর আয়োজন করে।
জেলা শহরের ডিবি রোডের ১নং ট্রাফিক মোড় এলাকায় মানববন্ধন শেষে পৌর শহিদ মিনারে অনুষ্ঠিত সমাবেশে বক্তারা বলেন, সংবিধানে সকল নাগরিকের সমঅধিকারের কথা বলা থাকলেও গাইবান্ধা জেলাসহ সারাদেশে দলিত রবিদাস, হরিজনদের কোন হোটেল-রেঁস্তোরায় প্রবেশাধিকার নেই। মানুষের মৌলিক অধিকার হরণ করে কোন জাতিগোষ্ঠীর উন্নয়ন সম্ভব নয় উল্লেখ্য করে বক্তারা বলেন, মহান মুক্তিযুদ্ধে এদেশের সকল ধর্ম বর্ণের মানুষের সাথে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে দলিত শ্রেণির মানুষও মুক্তিযুদ্ধে অংশ নিয়েছিল। তারাও জীবন দিয়েছে। দেশের নাগরিক হিসেবে সকল সুযোগ-সুবিধা ভোগ করার অধিকার তাদের রয়েছে। তারা হোটেল-রেঁস্তোরায় প্রবেশাধিকারসহ দলিত শ্রেণির সকল অধিকার বাস্তবায়নে দলিত শ্রেণিসহ সর্বস্তরের জনগণকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানান।
সমাবেশে বক্তব্য রাখেন, বাংলাদেশ জয়ভীম ছাত্র ফেডারেশন কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক হেমন্ত দাস, বাংলাদেশ হরিজন যুব ঐক্যের কেন্দ্রীয় আহ্বায়ক রেোজশ বাসফোর, দলিত ও বঞ্চিত জনগোষ্ঠী অধিকার আন্দোলনের জেলা সাধারণ সম্পাদক খিলন রবিদাস, বাংলাদেশ জয়ভীম ছাত্র ফেডারেশন গাইবান্ধা জেলা শাখার সভাপতি কৃষ্ণ কর্মকার,বাস জেলা শাখার সভাপতি সন্তোষ বাসফোর,বাশফোর নারী নেত্রী গায়েত্রী বাসফোর, সুনীল রবিদাস,স্বপন বাশফোর ও কীর্তন বাসফোর প্রমূখ।
সমাবেশ ও মানববন্ধনের সংহতি জানিয়ে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ উদীচী শিল্পীগোষ্ঠী সাধারণ সম্পাদক ও মাসিক দলিতকন্ঠের জেলা প্রতিনিধি মাহমুদুল গনি রিজন, পুজা উদযাপন পরিষদের যুব ঐক্য ফোরামের সভাপতি পলাশ চাকী। সমাবেশ শেষে জেলা প্রশাসক বরাবরে একটি স্মারকলিপি প্রদান করা হয়।

সর্বশেষ সংবাদ