বাইডেনের কাছে যা চাইছে ইরান

মার্কিন নির্বাচনে ইলেকটোরাল ভোটে নির্বাচিত ডেমোক্র্যাট প্রার্থী জো বাইডেনের কাছে যুক্তরাষ্ট্রের আরোপিত নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করে নিতে আহ্বান জানিয়েছে ইরান। দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী জাভেদ জারিফ এক্ষেত্রে প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন, নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করে নিলে ২০১৫ সালের পারমাণবিক চুক্তি পূর্ণ বাস্তবায়ন করবে তার দেশ। আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম আলজাজিরা জানিয়েছে মাত্র তিনটি নির্বাহী আদেশের মাধ্যমে খুব দ্রুতই বাইডেন সেই পথ সুগম করে দিতে পারেন বলে মন্তব্য করেছেন জারিফ।

বুধবার( ১৮ নভেম্বর)  ইরান সরকার নিয়ন্ত্রিত বার্তা সংস্থা ডেইলি ইরানের কাছে এক ভিডিও সাক্ষাৎকারে জাভেদ জারিফ বলেন, বাইডেন যদি যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিশ্রুতি পূরণে ইচ্ছুক হন তাহলে আমরাও অবিলম্বে চুক্তির প্রতিশ্রুতিতে ফিরে যাব আর চুক্তির কাঠামোর মধ্য দিয়ে আলোচনা শুরু করাও সম্ভব হবে। যুক্তরাষ্ট্র কীভাবে চুক্তিতে ফিরতে পারে তা নিয়ে আলোচনার জন্য আমরা প্রস্তুত। পরবর্তী কয়েক মাসে পরিস্থিতির উন্নতি হবে। মাত্র তিনটি নির্বাহী আদেশ দিয়েই বাইডেন সব নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করে নিতে পারেন।’

তিনি আরও বলেন, ‘কোনও ধরনের শর্ত নির্ধারণের প্রয়োজন ছাড়াই এটি স্বয়ংক্রিয়ভাবে করা যেতে পারে। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্, জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের ২২৩১ আর্টিকেলের অধীনে তারা এটা তুলে নিতে পারে। তারা তাদের দায়িত্ব পালন করবে আর পারমাণবিক চুক্তির আওতায় আমাদের প্রতিশ্রুতি পালন করব। তবে এটার জন্য নতুন করে কোনও শর্তের প্রয়োজন নেই।’

এদিকে জারিফ মার্কিন নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের আহ্বান জানালেও যুক্তরাষ্ট্রের কাছ থেকে কোনও ক্ষতিপূরণ আদায়ের ওপর জোর দেননি। তবে  এর আগে ইরানের প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানি জানিয়েছিলেন, শুধু নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারই নয় ইরানের যে ক্ষতি হয়েছে তার ক্ষতিপূরণও যুক্তরাষ্ট্রকে দিতে হবে।

২০১৫ সালে ছয় বিশ্ব শক্তির সঙ্গে একটি যুগান্তকারী পারমাণবিক চুক্তি স্বাক্ষর করে তেহরান। চুক্তি অনুযায়ী আন্তর্জাতিক নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের বিনিময়ে ইরান শান্তিপূর্ণ পারমাণবিক কার্যক্রম চালানোর অনুমতি পেলেও বোমা তৈরি থেকে বিরত থাকার প্রতিশ্রুতি দেয়। তবে ২০১৮ সালে প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ওই চুক্তি থেকে যুক্তরাষ্ট্রকে বের করে নিয়ে যান।