চলনবিলে শুরু হয়েছে খেজুরের রস সংগ্রহের প্রস্তুতি

এ এইচ খোকন চলনবিল প্রতিনিধিঃ  আবহমান বাংলায় খেজুর রস আহরণ,খেজুর গুড় আর নবান্নের উৎসব একটি প্রাচীন ঐতিহ্য । আর খেজুর রসের পিঠা পায়েস বাংলার উপাদেয় খাদ্য তালিকায় এখনও জনপ্রিয়। বছরজুড়ে অযত্ন আর অবহেলায় পড়ে থাকলেও শীতকালে চাষিদের কাছে খেজুর গাছের কদর বেড়ে যায়। কারণ শীত মৌসুম জুড়ে আহরিত হয় সুমিষ্ট রস। আর এ রস জ্বালিয়ে ঝোলা গুড়, দানা গুড় ও পাটালি তৈরি করা হয়।খেজুরের গুড় থেকে এক সময় বাদামি চিনিও তৈরি করা হতো। যার মৌতানো স্বাদ ও ঘ্রাণ সর্ম্পূণ ভিন্ন। খেজুর গাছের বৈশিষ্ট্য হচ্ছে যত বেশি শীত পড়বে তত বেশি মিষ্টি রস দেবে। শীতের সকালে খেজুর রস পান করলে শরীর ও মনে প্রশান্তি এনে দেয়। খেজুর গুড় আবহমান বাংলার সংস্কৃতির অনুষঙ্গ। খেজুর রস গ্রাম বাংলায় শীত উদযাপনের সাথে মিলে মিশে আছে। কৃষকরা নতুন ধান সংগ্রহের পাশাপাশি খেজুর রস আহরেণর প্রস্তুতি শুরু করেছে। এখন চলছে খেজুর গাছের ডগা চাছার কাজ। এরপর চাছা ডগায় বাশের তৈরি বিশেষ নল লাগিয়ে সংগ্রহ করা হবে ফোটায় ফোটায় রস। মাটির হাড়িতে সংগ্রহ করা হবে সেই রস৷ রস থেকেই হবে চলনবিলের সুস্বাদু  খেজুর গুর৷