একই গ্রামে পৃথক পৃথক ঘটনায় জমি সংক্রান্ত জেরে আহত ১৫

জয়পুরহাট প্রতিনিধিঃ ২২ নভেম্বর: জয়পুরহাটের কালাইয়ে একই গ্রামে পৃথক পৃথক ঘটনায় জমি সংক্রান্ত জেরে ১৫ জন আহত হওয়ার ঘটনা ঘটেছে। শনিবার বিকেল পর্যন্ত কালাই উপজেলার বিনইল গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। আহতরা কালাই উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

ঘটনার বিবরণে জানা যায়, কালাই উপজেলার বিনইল গ্রামের আফজাল হোসেনের পরিবারের সঙ্গে শাহজাহান সরকারের পরিবার, নিজাম উদ্দিনের পরিবারের সাথে আব্দুস সাত্তারের পরিবার, মরিয়মের পরিবারের সাথে আবু বক্কর সিদ্দিকের পরিবারের মধ্যে জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে পৃথক পৃথক ঘটনায় উভয় পক্ষের মধ্যে মারামারি হয়। এসময় জমির বিভিন্ন ফলের গাছ কেটে ফেলা সহ অন্যান্য ক্ষতি সাধন এবং ১৫ জন আহত হয়ে কালাই উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ভর্তি রয়েছেন।আফজাল হোসেন বলেন, আমি বৈধভাবে ৭ শতক জমি ক্রয় করি। সেই জমিতে শাহজাহান ও তার দলবল অবৈধ ভাবে জোর পূর্বক ঘর নির্মাণ করতে আসলে আমরা বাঁধা প্রদান করি। এসময় তারা আমাদেরকে মারার জন্য আসে। পরে থানাতে অভিযোগ করলে থানার অফিসার তদন্ত করে শাহজাহানদের বিরুদ্ধে আদালতে একটি নন এফআইআর প্রসিকিউশন দাখিল করেন। প্রসিকিউশনের মামলাটি আদালতে বিচারাধীন আছে। তারপর খড়ের পালা দেওয়াকে কেন্দ্র করে গত শুক্রবার দুপুরে আমার পরিবারের সদস্যদের উপর লাঠি, শাবল, রড, হাসুয়া দিয়ে এলোপাতারি মারধর করে আমাকে ও আমার শ্বাশুড়ি নূর জাহানকে আহত করে। গুরুতর অবস্থায় আমার শ্বাশুড়ি কালাই হাসপাতালে ভর্তি আছে। বর্তমানে আমি ও আমার পরিবার চরম ভাবে হুমকির মধ্যে আছি। তারা যেকোন সময় আমাদের ক্ষতি করতে পারে। তাদের বিরুদ্ধে দ্রুত আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হোক।কালাই থানার তদন্ত পরিদর্শক আব্দুল মালেক জানান, এ সময়ে ধান কাটা ও আলু রোপণ চলছে। এ কারণে জমি সংক্রান্ত জটিলতা দেখা দিয়েছে। জমি সংক্রান্ত বিরোধগুলো দেওয়ানী মকর্দমার মধ্যে পড়ে। আমাদের হচ্ছে ফৌজদারি অপরাধ। আইনশৃঙ্খলা যেন বিঘ্ন না ঘটে এ বিষয়ে আমরা পদক্ষেপ নেই। অভিযোগগুলো তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।