ঢাকার বনশ্রীতে গৃহকর্মী লাইলী হত্যার প্রতিবাদে কুড়িগ্রামের মানববন্ধন

সাইফুর রহমান শামীম, কুড়িগ্রাম প্রতিনিধিঃঢাকার বনশ্রীতে গৃহকর্মী লাইলী বেগমকে নির্যাতন করে হত্যার প্রতিবাদে ও হত্যাকারীদের বিচারের দাবীতে কুড়িগ্রামের দাসিয়ার ছড়ায় মানব বন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে।
রোববার তার নিজ গ্রাম কুড়িগ্রামের বিলুপ্ত ছিটমহল দাসিয়ার ছড়ার কালিরহাট বাজারে এ মানব বন্ধন করে এলাকাবাসী। এসময় বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ-ভারত ছিটমহল বিনিময় সমন্বয় কমিটির সাবেক সভাপতি মঈনুল হক ও সাধারণ সম্পাদ গোলাম মোস্তফাসহ বিলুপ্ত ছিটের নেতারা।
মানব বন্ধনে বক্তারা বলেন, বিলুপ্ত ছিটমহল দাসিয়ার ছড়ার অধিবাসী ২ সন্তানের জননী গৃহকর্মী লাইলী বেগমকে ঢাকার বনশ্রীর একটি বাড়ীতে নির্যাতনের পর হত্যা করে লাশ ঝুলিয়ে রাখা হয়। এ ঘটনার সাথে জড়িতদের দ্রুত বিচারের দাবী জানান তারা।

উল্লেখ্য, গত শুক্রবার রাজধানীর বনশ্রী বি ব্লকের ৪ নম্বর রোডের ১৪ নম্বর বাড়ি থেকে লাইলীর (২৬) ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। ওইদিন রাতেই লাইলীর স্বামীর বড় ভাই শহীদুল ইসলাম বাদী হয়ে খিলগাঁও থানায় একটি হত্যা মামলা করেন। মামলায় গৃহকর্তা মুন্সি মাইন উদ্দিন, তার স্ত্রী শাহানা বেগম, কেয়ারেটেকার তোফাজ্জল হোসেন টিপুর নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত আরো কয়েকজনকে আসামি করা হয়।
কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ী উপজেলার বিলুপ্ত ছিটমহল দাশিয়ারছড়ার সমন্বয় পাড়ায় বাবার বাড়ির আঙিনায় চিরনিদ্রায় শায়িত হলেন ঢাকার বনশ্রীতে নিহত গৃহকর্মী লাইলী বেগম।
রোববার সকাল সাড়ে ৮টায় খেজুরতলা নূরানী হাফেজিয়া মাদ্রাসার মাঠে কয়েক’শ মানুষের অংশ গ্রহণে জানাজা শেষে তার বাবার বাড়ির প্রাঙ্গণে তাকে দাফন করা হয়।
এর আগে ময়না তদন্ত শেষে শনিবার বিকালে লাইলীর লাশ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়। রোববার ভোর পাঁচটায় লাইলীর বাবা নজরুল ইসলাম ও ঢাকায় অবস্থানরত স্বজনরা লাশ নিয়ে লাইলীর গ্রামের বাড়ি কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ী উপজেলার বিলুপ্ত ছিটমহল দাসিয়ারছড়ার কালিরহাট বাজার সংলগ্ন সমন্বয় পাড়ায় পৌঁছায়।