প্রেমে ব্যর্থ হওয়ায় স্কুল পড়–য়া ছাত্রীর আত্মহত্যা

শিবগঞ্জ (বগুড়া) প্রতিনিধিঃ গতকাল বগুড়ার শিবগঞ্জে কিচক ইউনিয়নের আয়ুশ গ্রামের রফিকুল ইসলামের সদ্য এস.এস.সি উর্ত্তীণ প্রেমে ব্যার্থ হওয়ায় আত্মহত্যা করেছে। এব্যাপারে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে শিবগঞ্জ থানায় একটি মামলা হয়েছে। থানা ও মামলা সূত্রে জানাযায়, কিচক ইউনিয়নের আয়ুশ গ্রামের রফিকুল ইসলামের মেয়ে মোছাঃ মরিয়ম বেগম পার্শ্ববর্তী গ্রামের তালতলা গ্রামের রফিকুল মন্ডলের ছেলে মোঃ রবিউল ইসলাম এর সাথে দীর্ঘ ৩ বছর আগে থেকে সম্পর্ক গড়ে উঠে। ব্যাপারটা জানাজানি হলে মরিয়ম ছেলেকে বিয়ের জন্য চাপ দেয়। ধুর্ত রবিউল ইসলাম মেয়েকে ভুল ভাল বুঝিয়ে শান্ত করে রাখে। এরই মধ্যে রবিউল গোপনে বিয়ে করলে মরিয়ম ব্যাপারটি জানতে পেরে তার বাড়ীতে গিয়ে উঠে। তখন রবিউল তাকে এই সদ্য বিবাহিত মেয়েকে তালাক দিয়ে তাকে বিয়ে করার আশ্বাস দিয়ে বাড়ি পাঠিয়ে দেয়। কিন্তু দীর্ঘদিন অতিবাহিত হলেও ছেলে তার সাথে কোন যোগাযোগ রাখেনা এবং যোগাযোগ করতে গেলে নানান তালবাহানা করে। এদিকে গ্রামের লোকজনের বিদ্রুপমূলক কথা শুনতে না পেরে গত ১০ জুন সকাল ১০ টায় গলাই দড়ি দিয়ে আত্মহত্যা করে। এব্যাপারে মরিয়মের বাবা রফিকুল ইসলাম শিবগঞ্জ থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে রফিকুল মন্ডলের ছেলে মোঃ রবিউল ইসলাম, মৃত ওছির উদ্দিন প্রাং এর ছেলে মোঃ রফিকুল মন্ডল ও আব্দুল কুদ্দুস, সেকেন্দারের ছেলে মোঃ সেলিম মিয়া, মৃত আব্দুস সামাদের ছেলে আব্দুল মজিদ, সেকেন্দার আলীর স্ত্রী মোছাঃ মরিয়ম বেগম সহ ৬ জনের নামে মামলা দায়ের করে। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত লাশ মর্গে পাঠানেরা প্রস্তুতি চলছিল।