নাসির ইস্যুতে লাইভে এসে যা বললেন সুবাহ

 

সম্প্রতি বিয়ে করেছেন আলোচিত ক্রিকেটার নাসির হোসেন ও কেবিন ক্রু তামিমা সুলতানা তাম্মি। বিয়ের পর থেকেই সমালোচনার মুখে পড়েছেন জাতীয় দলের এই ক্রিকেটার। তাদের বিয়ের আমেজ থাকতে থাকতেই জানা গেল, আগের স্বামী রাকিবকে ডিভোর্স না দিয়েই নাসিরকে বিয়ে করেছেন তামিমা। সে ঘরে ৮ বছরের এক কন্যা সন্তানও রয়েছে বলে জানা যায়।

বিষয়গুলো জানার পরই নাসির ও তামিমার ওপর চটেছেন নাসিরের সাবেক প্রেমিকা সুবাহ। নাসিরের সাবেক প্রেমিকা ও মডেল ও অভিনেত্রী দাবি করা সুবাহ শাহ হুমায়রা ফেসবুক লাইভে এসে মঙ্গলবার (২৩ ফেব্রুয়ারী) তামিমার উপর ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, ‘তামিমা যে এতটা খারাপ আমি জানতাম না।’

লম্বা লাইভের শুরুতেই সুবাহ বলেন, ‘নাসির হোসেন এবং তামিমা তাম্মিকে নিয়ে লাইভে এসে কথা বলতে বাধ্য হলাম। আমি আর সহ্য করতে পারছি না। শুটিংয়ে গিয়েও নাসির-তামিমাকে নিয়ে কথা শুনতে হচ্ছে আমার। আমি এর আগেও বলেছি ২০১৮ সালে নাসিরের সঙ্গে আমার সব শেষ হয়ে গেছে।’

হুমায়রা সুবাহ বলেন, ‘যখনই নাসির-তামিমার কথা আসছে, তখনই আমার নামটি আসছে কেন? আমার তো ফ্যামিলি আছে। আমার তো স্ট্যাটাস আছে।’ তামিমা সর্ম্পকে আগাগোড়া সব জানতেন উল্লেখ করে সুবাহ বলেন, ‘শুধু তামিমা না, অনেক মেয়ের সঙ্গেই নাসিরের অবৈধ সম্পর্ক ছিল।’

তামিমাকে নিয়ে সুবাহ বলেন, ‘তামিমা আমার ফেসবুকে ছিল। নাসিরের সঙ্গে ওর অবৈধ সম্পর্ক ছিল সেটাও আমি জানতাম। আমি নাসিরকে ওর কথা জিজ্ঞেস করলেই নাসির বলত, ও আমার জাস্ট ফ্রেন্ড। আর কিচ্ছু না।’ সুবাহ বলেন, ‘কতটা খারাপ মহিলা হলে ৮ বছরের বাচ্চাকে রাস্তায় ফেলে এসে নাসিরের টাকা দেখে তাকে বিয়ে করতে পারে। নাসিরের বউ এই তামিমাকে রাস্তায় পেলে আমি জুতা পেটা করব। আমি তো মনে করি নাসির ও তামিমাকে জুতার মালা গলায় দিয়ে ঘুরানো উচিত। না হলে ওদের আগুন দিয়ে পুড়িয়ে মারা উচিত।’

তিনি আরো বলেন, ‘এত ভালো ভালো মেয়েদের সঙ্গে প্রেম করে নাসিরের জীবনে একটা নষ্টা মেয়ে জুটেছে। নষ্টা চরিত্রের এক মেয়েকে বিয়ে করেছে। তাকে নিয়ে লাইভে এসে নাচানাচি করছে। নাসিরের কাছের মানুষ আমাকে বলেছে, তামিমা নাসিরকে বিয়ে করেছে তাকে বিভিন্ন প্রলোভন দেখিয়ে। নাসির তো লোভী, লোভ দেখিয়েই তাকে বিয়ে করেছে। এটা নাসিরের কর্মের ফল। এই নাসির ৮০-৯০টা মেয়ের জীবন নষ্ট করেছে। এখন তার কপালেই নষ্ট মেয়ে জুটেছে।’

লাইভের এক পর্যায়ে সুবাহ বলেন, ‘তামিমা নামের আগে এয়ার হোস্টেস ট্যাগ লাগিয়ে একের পর এক বিয়ে করেছে। ব্যাংকে টাকা পয়সা জমিয়েছে, ফ্ল্যাট করেছে। শেষে নাসিরের গলায় ঝুলে পড়েছে। নাসির যেমন, তামিমাও তেমন। যেমন কুকুর তেমন মুগুর।’