ধুনটে স্ত্রীর লাশ হাসপাতালে রেখে স্বামী উধাও

কারিমুল হাসান লিখন, ধুনটঃ

বগুড়ার ধুনটে স্ত্রীর লাশ হাসপাতালে রেখে স্বামী উধাও হওয়ার ঘটনা ঘটেছে। রবিবার সকালে এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় সুত্রে জানা যায়, প্রায় ৫ মাস আগে ধুনট উপজেলার সদর ইউনিয়নের আনোয়ার হোসেনের ছেলে রাজ মিস্ত্রী মজনু মিয়ার সাথে একই উপজেলার পশ্চিম ভরনশাহী গ্রামের চান্দু মিয়ার মেয়ে দুলালী খাতুন (১৬) এর বিয়ে হয়। বৈবাহিক সংসার চলাকালে ঘটনার দিন সকাল ১০টায় স্বামী মজনু মিয়া তার স্ত্রী দুলালী খাতুনের লাশ ধুনট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসে। কমপ্লেক্স চত্বরে লাশ রেখে পালিয়ে যায় স্বামী মজনু মিয়া। দুলালীর মৃত্যু হত্যা না আত্মহত্যা নিয়ে স্থানীয়দের মাঝে শুরু হয়েছে নানা গুঞ্জন ও মিশ্র প্রতিক্রিয়া। ধুনট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্তব্যরত চিকিৎসক জানান, দুলালী খাতুনকে মৃত অবস্থায় নিয়ে এসেছে।

ধুনট থানার এসআই প্রদীপ কুমার বর্মণ জানান, নিহত দুলালী খাতুনের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। স্ত্রী দুলালীর লাশ হাসপাতালে রেখে স্বামী মজনু মিয়া পালিয়ে যায়।

ধুনট থানার অফিসার ইনচার্জ কৃপা সিন্ধু বালা জানান, লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য বগুড়া জিয়াউর রহমান মেডিকেল হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন ময়না তদন্তের রিপোর্ট হাতে পেলেই মৃত্যু প্রকৃত কারন ও রহস্য উদঘাটন হবে।