শিবগঞ্জে আগুনে পুড়লো বিধবা রেহেনার ঘর

শিবগঞ্জ (বগুড়া) প্রতিনিধিঃ বগুড়ার শিবগঞ্জের রায়নগর ইউনিয়নের করতকোলা পূর্বপাড়া গ্রামে মামলা দিয়ে উৎখাত করতে না পেরে এক বিধবার ঘরে আগুন দেওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে।
০৯ মার্চ মঙ্গলবার দিবাগত রাতে এ অগ্নিসংযোগের ঘটনা ঘটে। সরেজমিনে জানা যায়, করতকোলা পূর্বপাড়া গ্রামের মৃত খাঁজা প্রাং এর পুত্র অসহায় ইট ভাটা শ্রমিক আব্দুল হামিদ, জাফর ও কালামের সাথে প্রতিবেশী হামেজের পুত্র শফিকুল ইসলাম, রফিকুল ও মোজাফফর হোসেনের করতকোলা মৌজার ১১২৮/১৬২৪ নং দাগের ২১ শতক ভিটা জমি নিয়ে পূর্ব থেকে বিরোধ চলে আসছিলো। উক্ত দাগের ১৩ শতাংশ জমি পৈতৃক মুলে মৃত খাঁজা প্রাং এর পুত্ররা তাঁর বিধবা মা রেহেনা বেওয়াকে এলাকাবাসীর সহায়তায় একটি টিনসেড ঘর নির্মাণ করে দেয়। রেহানা বেওয়ার ঘর নির্মাণ শুরু থেকেই সেখানে বাঁধা প্রদান করে আসছিলো শফিকুল ইসলাম গংরা। এরই ধারাবাহিকতায় হামেজের পুত্র শফিকুল ইসলাম কোর্টে ৫জনের নাম উল্লেখ করে একটি মামলা দায়ের করেন।
গত ০৯ মার্চ মঙ্গলবার কোর্টের আদেশ তদন্ত করেন শিবগঞ্জ থানার এসআই বিরঙ্গ চন্দ্র মন্ডল। হামিদের মা বিধবা রেহানা বেওয়া অন্যান্য দিনের ন্যায় রাতে খাবার খেয়ে শুয়ে পড়লে গভীর রাতে দেখতে পায় ঘরে আগুনের লেলিহান শিখা। একপর্যায়ে বাঁচার আকুতিতে আত্মচিৎকার করলে এলাকাবাসী দ্রুত ছুটে এসে তাকে উদ্ধার করে আগুন নিয়ন্ত্রণ করে।
বিধবা রেহানা বেওয়া বলেন, আমাকে পুড়ে মারার জন্য বাড়িতে আগুন দেওয়া হয়েছিলো, আমি প্রশাসনের কাছে এমন নেক্কারজনক ঘটনার সুষ্ঠু বিচার দাবী করছি। এলাকাবাসী জানায়, পুলিশের তদন্ত শফিকুলের পক্ষে না যাওয়ায় এমন অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটাতে পারে। এঘটনায় শিবগঞ্জ থানার এসআই বিরঙ্গ চন্দ্র মন্ডল বলেন, বিধবার বাড়িতে অগ্নি সংযোগের বিষয়টি দুঃখজনক, এবিষয়ে অভিযোগ পেলে প্রযোজনীয় আইনী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। এরিপোর্ট লেখা পর্যন্ত থানায় অভিযোগ দায়েরের প্রস্তুতি চলছিলো।

সর্বশেষ সংবাদ