ঢাবিতে প্রস্রাব করাকে কেন্দ্র করে কেন্দ্রীয় নেতাকে পেটালো ছাত্রলীগ কর্মী

কয়েকজন ছাত্রলীগকর্মী আড্ডা দিচ্ছে তার পাশে কেন্দ্রীয় এক নেতার প্রস্রাব করাকে কেন্দ্র করে মারামারি ঘটনা ঘটেছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে।

জানা যায়, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের প্রাঙ্গণে প্রস্রাব করায় বাংলাদেশ ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির এক নেতাকে মারধর করে আহত করেছেন একই সংগঠনের ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখার এক কর্মী। মঙ্গলবার দিবাগত রাতে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় শাহবাগ থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে বলে জানা গেছে।

হামলার শিকার পুতল চন্দ্র রায় বাংলাদেশ ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় স্কুল ও ছাত্র বিষয়ক সম্পাদক। তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষা ও গবেষণা ইনস্টিটিউটের (২০১০-১১ সেশন) ও জগন্নাথ হলের আবাসিক শিক্ষার্থী ছিলেন। মারধরে অভিযুক্ত ওই ছাত্রলীগ কর্মীর নাম সামিউজ্জামান সামি। তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন অনুষদের তৃতীয় বর্ষের ছাত্র এবং স্যার এ এফ রহমান হলের আবাসিক শিক্ষার্থী। ওই ঘটনায় অভিযুক্ত সামিউজ্জামান সামিকে ছাত্রলীগ থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, মঙ্গলবার মধ্যরাতে পুতুল চন্দ্র রায় ও তার সঙ্গে থাকা আরেকজন আইন অনুষদের ভেতরে (মোতাহার হোসেন ভবন) কাছে দাঁড়িয়ে প্রস্রাব করে। এ সময় সেখানে জামান সামি ও তার কয়েকজন বন্ধু আড্ডারত অবস্থায় ছিলো । তাদের মধ্য থেকে সামি এসে তাদের এভাবে দাঁড়িয়ে সবার সামনে প্রস্রাব করতে বাধা দেন। এ নিয়ে তাদের মধ্যে হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। পুতুল তার পরিচয় দিলে উভয়পক্ষের মধ্যে বাকবিতণ্ডা হয়। একপর্যায়ে সামি পুতুলের কপালে ঘুসি মারলে তার চোঁখের ভ্রুর কাছে ফেটে যায়। পরে তিনি ঢাকা মেডিকেলে চিকিৎসা নেন।