শীঘ্রই গিনেজ ওয়ার্ল্ড রেকর্ডস-এ স্থান করে নিবে ‘শস্যচিত্রে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু’

স্টাফ রিপোর্টার:শস্যচিত্রে বঙ্গবন্ধু জাতীয় বাস্তবায়ন পরিষদ সদস্য ও আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবকলীগের কেন্দ্রিয় সহ-সভাপতি ম. আব্দুর রাজ্জাক বলেছেন, সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের শততম জন্মবার্ষিকী স্মরণীয়, বরনীয় ও স্মৃতিতে অ¤¬ান করে রাখতে পৃথিবীর সর্ববৃহৎ ক্রপ ফিল্ড মোজাইক ‘শস্যচিত্রে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু’ উপস্থাপন করে গিনেজ বুকে স্থান করার উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। ইতিমধ্যে সকল কার্যক্রম সফলভাবে সম্পন্ন করার মধ্য দিয়ে অনেকটা পথ পারি দিতে সক্ষম হয়েছি। বগুড়া জেলার শেরপুর উপজেলার ভবানীপুর ইউনিয়নের বালেন্দা গ্রামে ন্যাশনাল এগ্রিকেয়ার নামক প্রতিষ্ঠানের সার্বিক তত্ত্বাবধানে ১০০ বিঘা জমিতে ২ ধরনের ধানের চারা লাগিয়ে মহতী উদ্যোগের উদ্বোধন করা হয়। ভারত, বৃটেন, জাপান ও চীনের রেকর্ড ভেঙে শীঘ্রই শস্যচিত্র অংকনকারী ৫ম দেশ হিসেবে “গিনেজ ওয়ার্ল্ড রেকর্ডস এ স্থান করে নিবে বাংলাদেশ। গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে বগুড়া পর্যটন মোটেলে সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময়কালে এসব কথা বলেন। আগামী ১৩ মার্চ শেরপুরের বালেন্দা গ্রামে শস্যচিত্রে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শীর্ষক আলোচনা সভা সফল করতে মতবিনিময় সভায় আরো বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক অধ্যক্ষ শাহাদৎ আলম ঝুনু, বগুড়া প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি প্রদীপ ভট্টাচার্য শংকর, প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক আরিফ রেহমান, বগুড়া সাংবাদিক ইউনিয়ন সভাপতি আমজাদ হোসেন মিন্টু, জেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগ সভাপতি ভিপি সাজেদুর রহমান সাহীন, সাধারণ সম্পাদক জুলফিকার রহমান শান্ত, স্বেচ্ছাসেবকলীগের কেন্দ্রিয় সদস্য মেহেদী হাসান রবিন। বগুড়া জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের উদ্যোগে আলোচনা সভায় ও স্থানীয় এবং আন্তর্জাতিক পর্যায়ে এটির গুরুত্ব তুলে ধরার জন্য ও পরিদর্শন করতে জাতীয় নেতৃবৃন্দ বগুড়ায় আসবেন। বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দীন নাছিম, বাংলাদেশ আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি নির্মল রঞ্জন গুহ, সাধারণ সম্পাদক আফজালুর রহমান বাবু সহ জাতীয় ও স্থানীয় নেতৃবৃন্দ এতে উপস্থিত থাকবেন।ডাকসুর সাবেক সদস্য ম. রাজ্জাক বলেন, সর্বশেষ ২০১৯ সালে চীনে শস্যচিত্র তৈরি করা হয়েছিল যার আয়তন ছিল ৮ লাখ ৫৫ হাজার ২ ফুট। বগুড়ার প্রত্যন্ত গ্রামে জাতির পিতার শস্যচিত্রটির আয়তন ১২ লাখ ৯২ হাজার বর্গফুট। গত ২৯ জানুয়ারি বাংলালেশ আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য জাহাঙ্গীর কবির নানক, শস্যচিত্রে বঙ্গবন্ধু জাতীয় পরিষদের প্রধান পৃষ্ঠপোষক ও আহবায়ক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাসিম চারা রোপনের উদ্বোধন করেন। ইতিমধ্যে গিনেজ বুক ওয়ার্ল্ডের প্রতিনিধিগন ৯ই মার্চ শস্য চিত্র পরিদর্শন করে সন্তোষ প্রকাশ করেছেন। তারা অভিমত ব্যক্ত করেছেন গিনেজ বুকের সকল নিয়ম কানুন যথাযথভাবে মানা হয়েছে। তারা আশা প্রকাশ করেছেন বঙ্গবন্ধুর জন্মদিন ঐতিহাসিক ১৭ মার্চের মধ্যে এটি গ্রিনেজ ওয়ার্ল্ড রেকর্ডে স্থান করে নিবে।মতবিনিময়কালে ম. রাজ্জাক আরো বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু ছিলেন একজন কৃষি বান্ধব নেতা, তিনি সব সময় কৃষিকে এগিয়ে নেওয়ার স্বপ্ন দেখতেন, বঙ্গবন্ধু ১৯৫৪ সালের যুক্তফ্রন্টের মন্ত্রী সভার কৃষি মন্ত্রী ছিলেন। বঙ্গবন্ধু কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশের কৃষিক্ষেত্রে যুগান্তকারী উন্নয়ন হয়েছে। দেশ আজ খাদ্যে স্বয়সম্পূর্ন। এসব বিষয়কে সামনে রেখেই কৃষিবিদদের প্রিয় নেতা আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম তার মস্তিষ্কপ্রসূত ভাবনা থেকেই এই গৌরবোজ্জ্বল উদ্যোগ গ্রহণ করেছেন। যার মধ্য দিয়ে বগুড়া শেরপুরে ভবানীপুরের এই অবহেলিত জনপদ হয়ে উঠবে আগামীদিনের জাতীয় জীবনের এক অবিচ্ছেদ্য অংশ। তিনি বগুড়াবাসীর পক্ষ থেকে মহতী উদ্যোগের জন্য বাহাউদ্দিন নাছিম এর প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান। ১৩ মার্চের আলোচনা সভায় সাংবাদিকদের উপস্থিতি ও অংশগ্রহণ আমাদের এই অগ্রযাত্রাকে এগিয়ে নিবে পাশাপাশি আগামী প্রজন্মের মানুষের কাছে জাতির পিতার ভাবমূর্তি উজ্জ্বল করবে বলে তিনি প্রত্যাশা ব্যক্ত করেন।