কুড়িগ্রামে শুরু হয়েছে তিনদিন ব্যাপী ইজতেমা

সাইফুর রহমান শামীম কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি।।করোনাভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধে সব ধরনের জমায়েত, সভা-সমাবেশ আয়োজন অনির্দিষ্টকালের জন্য নিষিদ্ধের মধ্যেই কুড়িগ্রামে শুরু হয়েছে তিন দিনব্যাপী ইজতেমা। বৃহস্পতিবার (১১ মার্চ) জোহরের নামাজের পর বয়ানের মাধ্যমে কুড়িগ্রাম সদরের ধরলা ব্রিজের পূর্বপাড়ে ফজলুল করীম (রহ.) জামিয়া ইসলামিয়া ময়দানে শুরু হয় এই ইজতেমা।
তবে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে করোনা পরিস্থিতিতে সব ধরনের গণজমায়েত অনুষ্ঠান আয়োজন বন্ধের নির্দেশ থাকায় আয়োজকদের ইজতেমা অনুষ্ঠানের অনুমতি দেয়নি জেলা প্রশাসন। জেলা প্রশাসক (ডিসি) মোহাম্মদ রেজাউল করিম এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।
বৃহস্পতিবার (১১ মার্চ) বিকালে ইজতেমা প্রাঙ্গণে গিয়ে দেখা যায়, বিশাল মাঠ জুড়ে হাজার হাজার মানুষের সমাবেশ ঘটেছে। উপস্থিত মুসল্লিদের উদ্দেশে মাইকে বয়ান করছেন মুরুব্বিরা। থেমে থেমে চলছে জিকির। সড়কে তখনও আগন্তুক মুসল্লিদের সমাগম।
 স্বেচ্ছাসেবীরা মানুষের ভিড় সামাল দিতে ব্যস্ত সময় পার করছেন। মাঠের চারপাশে ও সড়কের ধারে খাবার ও বিভিন্ন সামগ্রী নিয়ে বসেছে অস্থায়ী দোকান।
ইজতেমার আয়োজক বাংলাদেশ মুজাহিদ কমিটির কুড়িগ্রাম জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক মো. হাবিবুর রহমান (হাবিবুল্লাহ) বলেন, ‘আজ (বৃহস্পতিবার) জোহরের নামাজের পর বয়ান শুরু হয়েছে। আগামী রবিবার ফজরের নামাজ শেষে আখেরি মোনাজাতের মাধ্যমে তিন দিনের ইজতেমা সমাপ্ত হবে।’
ইজতেমা ইনতেজামিয়া কমিটির আহ্বায়ক মোখছেদুর রহমান জানান, প্রতিবছর বড় পরিসরে ইজতেমার আয়োজন করা হলেও এ বছর পরিস্থিতি বিবেচনায় সীমিত আকারে প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে।
জেলা প্রশাসক রেজাউল করিম বলেন, ‘মন্ত্রীপরিষদ বিভাগের নির্দেশনা মোতাবেক সব ধরনের গণজমায়েত অনুষ্ঠানে নিষেধাজ্ঞা দিয়ে গণবিজ্ঞপ্তি জারি রয়েছে। ফলে আয়োজকদের আবেদন নামঞ্জুর করা হয়েছে।’

সর্বশেষ সংবাদ