ইতালিতে সংক্রমণ বাড়ায় আবারও লকডাউন হচ্ছে

ইতালিতে অ্যাস্ট্রাজেনেকার একটি লটের ভ্যাকসিন নেওয়ার পর একজনের মৃত্যুর ঘটনায় পুলিশ ওই লটটি আটকে দিয়েছে, যা নিয়ে দেশজুড়ে দেখা দিয়েছে আতঙ্ক। এমনিতেই বেপরোয়া গতিতে বাড়ছে ইতালিতে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা। ব্রিটেনের সঙ্গে বিমান যোগাযোগ অব্যাহত থাকায় নতুন ধরনের কোভিডে আক্রান্ত হচ্ছেন অনেকেই। এ অবস্থায় নতুন নতুন শহরকে রেড জোন ঘোষণা করা হচ্ছে।

গত ২৪ ঘণ্টায় ইতালিতে ২৫ হাজারেরও বেশি মানুষ নতুন করে করোনায় আক্রান্ত হয়েছে। এদের মধ্যে ব্রিটেন থেকে ছড়িয়ে পড়া নতুন ধরনের ভাইরাসে আক্রান্তও রয়েছেন পরিস্থিতি বিবেচনায় আবারো লকডাউনের কথা ভাবছে ইতালি সরকার। অঞ্চলভিত্তিক হতে পারে এই লকডাউন। মৃত্যুর হার কম হলেও সংক্রমণের ঊর্ধ্বগতিতে শঙ্কিত প্রবাসী বাংলাদেশিরা।

হামিদ হাসান নামে এক প্রবাসী বাংলাদেশি জানান, এভাবে করোনার সংক্রমণ বাড়তে থাকলে হয়তো সরকার আবারো লকডাউন দেবে। এতে আমাদের ব্যবসা-বাণিজ্য একবারেই শেষ হয়ে যাবে।

এদিকে ভ্যাকসিন নিয়ে নানা রকম জটিলতা দেখা দিয়েছে ইতালিতে। মার্চের প্রথম সপ্তাহে অ্যাস্ট্রাজেনেকার লটের ভ্যাকসিন প্রয়োগ করা হয় কয়েকটি শহরে। এই লটের ভ্যাকসিন নেয়া ৪৩ বছর বয়সী একজন মারা যাওয়ার পর সতর্কতামূলক ব্যবস্থা নিয়েছে ইতালি সরকার। অ্যাস্ট্রাজেনেকার ওই লট আটকে দিয়েছে পুলিশ।

ইতালিয়ান মেডিসিন এজেন্সি এবং ইউরোপিয়ান মেডিসিন এজেন্সির সমন্বয়ে ওই লটের ভ্যাকসিন পরীক্ষার পর পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেয়া হবে। এ ছাড়া রাশিয়ার তৈরি স্পুটনিক ফাইভ ভ্যাকসিন ইতালিতে উৎপাদনের চুক্তি করতে যাচ্ছে দেশটির একটি কোম্পানি। ইউরোপের মধ্যে প্রথম দেশ হিসেবে ইতালি এই চুক্তি করতে যাচ্ছে।

সর্বশেষ সংবাদ