বগুড়ায় বখাটেদের বিরুদ্ধে পুলিশের কঠোর অভিযান, আটক ১৫

সঞ্জু রায়, স্টাফ রিপোর্টার: নব-যোগদানকৃত পুলিশ সুপার সুদীপ কুমার চক্রবর্তীর অপরাধমুক্ত বগুড়া গড়ার ঘোষণা দেওয়ার ১ম দিনেই রবিবার শহর জুড়ে সাধারণ মানুষের নিরাপত্তা বিধানে বখাটেদের বিরুদ্ধে কঠোর টহল পরিচালনা করেছে সদর থানা ও জেলা গোয়েন্দা শাখার (ডিবি) যৌথ একটি টিম।
সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ফয়সাল মাহমুদের নেতৃত্বে জেলা গোয়েন্দা শাখার ওসি আব্দুর রাজ্জাকসহ সঙ্গীয় ফোর্সের রবিবার সন্ধ্যা থেকে পরিচালিত এই বিশেষ অভিযানে সন্দেহভাজন বিভিন্ন শ্রেণীপেশার ১৫ জনকে আটক করা হয়। জানা যায়, জেলা পুলিশ সুপারের নির্দেশে সন্ধ্যা থেকে পুলিশ সদস্যরা শহরের জলেশ^রীতলা, মফিজ পাগলার মোড়, জেলখানা মোড়, আলতাফুন্নেছা খেলার মাঠ, সূত্রাপুর, বকশিবাজার, ইয়াকুবিয়া মোড়সহ বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্টে অভিযান পরিচালনা করেন যেখানে যত্রতত্র অযথা ঘুরে বেড়ানো বখাটেদের তল্লাশি করাসহ হেলমেট ও লাইসেন্সবিহীনভাবে বাইক চালকদের আইনের আওতায় আনা, উচ্চ আওয়াজে যানবাহন চালনাকারীদের সতর্ককরণ, করোনাকালীন সময়ে বিভিন্ন মোড়ে মোড়ে অযথা আড্ডা বন্ধ করাসহ সুষ্ঠু আইনশৃঙ্খলা বজায় রাখতে সকলকে সচেতন করা হয় শহরজুড়ে। বখাটেদের বিরুদ্ধে এই অভিযানকে সাধুবাদ জানিয়ে এটিকে চলমান রাখারও আহ্বান জানিয়েছেন বগুড়ার সচেতন নাগরিকদের সকলে।
অভিযান পরিচালনা প্রসঙ্গে জেলা পুলিশের মিডিয়া মুখপাত্র ও সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ফয়সাল মাহমুদ জানান, জেলা পুলিশ সুপারের নির্দেশে প্রতিদিন এমন অভিযান চলমান থাকবে। কিশোর গ্যাংসহ সকল অপরাধের শিকড় উপড়ে ফেলতে পুলিশ সদস্যরা বরাবরের মতোই জিরো টলারেন্স ভূমিকা পালন করবে। অভিযানে আইন প্রয়োগের পাশাপাশি সকলকে আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল হওয়ার জন্যে সচেতনতার বার্তাও পৌঁছে দেওয়া হচ্ছে কারণ এই শহরটি সকলের তাই পুলিশের পাশাপাশি নাগরিকদেরও আরও দায়িত্বশীল হতে হবে। আটককৃতদের প্রসঙ্গে তিনি বলেন, আটককৃতদের মাঝে অধিকাংশই শিক্ষার্থী যারা সঙ্গ দোষে শহরের বিভিন্ন অলিতে গলিতে গভীর রাত পর্যন্ত অযথা আড্ডা মারে একটি পর্যায়ে জড়িয়ে যায় বিভিন্ন নেশায় তাই রবিবার প্রাথমিকভাবে তাদের অভিভাবকদের জিম্মায় সতর্ককরণের মাধ্যমে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে।