সিরাজগঞ্জের সলঙ্গা ও কাজীপুরে বিপুল পরিমান গাঁজাসহ ০৩ জন শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ী আটক

প্রেস বিজ্ঞপ্তি-র‌্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব) প্রতিষ্ঠাকালীন সময় থেকেই দেশের সার্বিক আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি সমুন্নত রাখার লক্ষ্যে সব ধরণের অপরাধীকে আইনের আওতায় নিয়ে আসার ক্ষেত্রে অগ্রণী ভূমিকা পালন করে যাচ্ছে। জঙ্গী, সন্ত্রাসী, সংঘবদ্ধ অপরাধী, ছিনতাইকারী, জুয়ারি, মাদক ব্যবসায়ী, খুন, এবং অপহরণসহ বিভিন্ন চাঞ্চল্যকর মামলার আসামী গ্রেফতারে র‌্যাব নিয়মিত অভিযান চালিয়ে আসছে।

১। এরই ধারাবাহিকতায় ১৬/০৮/২০২১খ্রিঃ সকাল ৬.০০ ঘটিকায় গোপন সাংবাদের ভিত্তিতে র‌্যাব-১২ এর সদর কোম্পানীর একটি চৌকষ আভিযানিক দল সিরাজগঞ্জ জেলার সলঙ্গা থানাধীন হাটিকুমরুল মোড়ের পূর্ব পার্শে¦ পাচালি ফুটওয়ার ব্রিজের নিচে পাকা রাস্তার উপর এক মাদক বিরোধী অভিযান চালিয়ে ০৩(তিন)কেজি ৮৬০(আটশত ষাট) গ্রাম নেশা জাতীয় মাদকদ্রব্য গাঁজাসহ ০২ জন শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করেছে। এছাড়াও তাহাদের নিকট থেকে নগদ ৭০০০(সাত হাজার) টাকা এবং ০২ টি মোবাইল জব্দ করা হয়।

গ্রেফতারকৃত আসামী ১। মোঃ এরশাদ হোসেন(৪০), পিতা-মোঃ আক্তার হোসেন, সাং-আদিতমারী বসিংটাড়ি@বসুনিয়াপাড়া ২। মোঃ ইয়াসিন অরাফাত(২৪), পিতা-মোঃ মোসলেম উদ্দিন, সাং-আদিতমারী বড়বারী উভয় থানা-আদিতমারী, জেলা-লালমনিরহাট।গ্রেফতারকৃত মাদক ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে ৩৬(১) এর সারণীর ১৯(ক) ধারার মামলা দায়ের করত উদ্ধারকৃত আলামতসহ তাহাদের কে সিরাজগঞ্জ জেলার সলঙ্গা থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

২। ৫/০৮/২০২১খ্রিঃ বিকাল ০৫.৫৫ ঘটিকায় গোপন সাংবাদের ভিত্তিতে র‌্যাব-১২ এর স্পেশাল কোম্পানীর একটি চৌকষ আভিযানিক দল সিরাজগঞ্জ জেলার কাজীপুর থানাধীন স্থলবাড়ী(তালুকদারপাড়া) গ্রামস্থ জনৈক মোঃ শাহীন মিয়া, পিতা-মৃত জহুরুল ইসলামের বাড়ীর উত্তর পার্শ্বে পাকা রাস্তার উপর এক মাদক বিরোধী অভিযান চালিয়ে ০২ কেজি ৯০০ (দুই কেজি নয়শত)  গ্রাম নেশা জাতীয় মাদকদ্রব্য গাঁজাসহ ০১ জন শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করেছে। এছাড়াও তাহার নিকট থেকে মাদক ক্রয়-বিক্রয়ের কাজে ব্যবহৃত ০১ টি মোবাইল জব্দ করা হয়।

গ্রেফতারকৃত আসামী মোঃ মঞ্জুরুল আলম(৩২), পিতা-মোঃ নজরুল ইসলাম, সাং-স্থলবাড়ি(তালুকদারপাড়া), থানা-কাজীপুর, জেলা-সিরাজগঞ্জ।

গ্রেফতারকৃত মাদক ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে ২০১৮ সালের মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রন আইনের ৩৬(১) সারণীর ১৯(ক) ধারায় মামলা দায়ের করত উদ্ধারকৃত আলামতসহ তাহাকে সিরাজগঞ্জ জেলার কাজীপুর থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায় যে, এই মাদক ব্যবসায়ীরা দীর্ঘদিন যাবŤ আইন প্রয়োগকারী সংস্থার চোখ ফাঁকি দিয়ে সিরাজগঞ্জ জেলার বিভিন্ন এলাকায় অবৈধ নেশাজাতীয় মাদকদ্রব্য ক্রয়-বিক্রয় করে আসছিল।

এ ধরণের মাদক উদ্ধার অভিযান সচল রেখে মাদকমুক্ত সোনার বাংলা গঠনে র‌্যাব-১২ বদ্ধপরিকর।

র‌্যাব-১২ কে তথ্য দিন – মাদক , অস্ত্রধারী ও জঙ্গিমুক্ত বাংলাদেশ গঠনে অংশ নিন।