গাবতলীতে গাছের ন্যায্য মূল্য না পাওয়ায় ইউএনও বরাবরে উপকারভোগী সদস্যদের অভিযোগ

রায়হানুর ইসলাম (বগুড়া) প্রতিনিধি- বগুড়ার গাবতলী পোষ্ট অফিস হতে খড়িয়ান জান ব্রীজ পর্যন্ত তিন কিলোমিটার রাস্তার গাছ উপকারভোগী সদস্যদের না জানিয়ে ২৭টি লটের মধ্যে শুধুমাত্র উন্নতমানের ৭টি লট টেন্ডারের মাধ্যমে বিক্রি করার অভিযোগ এনে গাবতলীর ইউএনও রওনক জাহানের বরাবরে একটি লিখিত অভিযোগ করা হয়েছে। অভিযোগটির অনুলিপি দেয়া হয়েছে, বগুড়া জেলা প্রশাসক, বগুড়া সামাজিক বনবিভাগ ও বগুড়া সড়ক ও জনপদ বিভাগকে। বৃহস্পতিবার ওই লিখিত অভিযোগটি দাখিল করেন উপকারভোগীদের মধ্যে ৫ জন সদস্যগণ। অভিযোগে বলা হয়েছে, রাস্তার সকল গাছ একসাথে বিক্রি করার কথা থাকলেও বগুড়া সামাজিক বনবিভাগ উপকারভোগী সদস্যদের না জানিয়ে ২৭টি লটের মধ্যে শুধুমাত্র উন্নতমানের ৭টি লট টেন্ডারের মাধ্যমে বিক্রি করেছেন। এতে উপকারভোগী সদস্যরা ন্যায্যমূল্য পাওয়া থেকে বঞ্ছিত হবেন। বৃহস্পতিবার দুপুরে ৩কি:মি: রাস্তার গাছ বিক্রি ও উপকারভোগী সদস্যদের প্রাপ্ত অর্থ থেকে বঞ্চিত করায় বগুড়ার গাবতলীতে বন বিভাগের অফিস অবরুদ্ধ করার চেস্টা করেন উপকারভোগী ৮২ জন সদস্য। পরে শান্তিপুর্নভাবে সমাধানের প্রয়াসে ইউএনও বরাবর অভিযোগ দেন। । এ ব্যাপারে ১৯শে আগষ্ট দুপুরে গাবতলী উপজেলা বনবিভাগ কর্মকর্তা দেল আবরার মোবাইল ফোন করা হলে তিনি ফোন রিসিভ করেননি। তবে গাবতলী উপজেলা বনবিভাগ অফিসের জনৈক শাজাহান বলেছেন, নিয়মনীতি সব ঠিকঠাক রেখেই টেন্ডারের মাধ্যমে বগুড়া ঠনঠনিয়া শহীদ নগরের মেসার্স রেদোয়ান এন্টার প্রাইজ (প্রোপাইটর মঞ্জুরুল আলম) লটের মূল্য, উৎস্য আয়কর ও ভ্যাট জমা দিয়ে ওই তিন কিঃ মিঃ সংযোগ সড়ক বাগান নিয়েছেন।

সর্বশেষ সংবাদ