বগুড়ায় মাদ্রাসাছাত্রীকে তুলে নিয়ে ধর্ষণ

স্টাফ রিপোর্টার:বগুড়ার শিবগঞ্জ উপজেলায় ১২ বছরের এক মাদ্রাসা ছাত্রীকে অপহরণের পর ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এই ঘটনায় ওই ছাত্রীর বাবা দুই যুবকের বিরুদ্ধে থানায় মামলা দায়ের করেছে।মামলায় আসামী করা হয়েছে উপজেলার শিবগঞ্জ ইউনিয়নের আলাদীপুর পশ্চিম পাড়া গ্রামের রফিকুল ইসলামের ছেলে দুলাল ইসলাম (২৫) ও একই গ্রামের আলম মিয়ার ছেলে মিনহাজুল মিয়া (২৪)কে।পুলিশ জানায়,উপজেলার শিবগঞ্জ ইউনিয়নের পূর্ব জাহাঙ্গীরাবাদ গ্রামের বাসিন্দা ওই মেয়ে আলাদীপুর পশ্চিমপাড়া হাফেজিয়া মাদ্রাসার হেফজ বিভাগের ছাত্রী (১২)। সে ওই মাদ্রাসায় আবাসিকে থেকে পড়াশুনা করে।গত শুক্রবার রাত ৮টার দিকে ওই ছাত্রী মাদ্রাসা থেকে পাশেই তার নানীর বাড়ি আলাদীপুর পূর্বপাড়ায় যাবার সময় ওই দুই যুবক তার পথরোধ করে তাকে কাঁধে তুলে পাশের কলাবাগানে নিয়ে গিয়ে উপযুপরি ধর্ষণ করে। পরে পাশের ইটভাটায় মেয়েটিকে ফেলে রেখে পালিয়ে যায়। এসময় মেয়েটি একাই পায়ে হেঁটে বগুড়া-জয়পুরহাট মহাসড়কে এলে টহল পুলিশ রাত সাড়ে ১১ টায় দিকে তাকে উদ্ধার করে। এ ঘটনায় শনিবার সকালে মেয়েটির বাবা বাদি হয়ে দুই জনের বিরুদ্ধে থানায় মামলা দায়ের করেন।শিবগঞ্জ থানার ওসি সিরাজুল ইসলাম বলেন, এ ঘটনায় থানায় ধর্ষণ মামলা নেওয়া হয়েছে। মেয়েটির স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিক্যাল কলেজ (শজিমেক) হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। মামলার আসামীদেরকে দ্রুত গ্রেফতার করে আইনের আওতায় আনার জন্য পুলিশি আভিযান চালানো হচ্ছে।

সর্বশেষ সংবাদ