নন্দীগ্রামে জমে উঠেছে শীতের কাপড় বেচাকেনা

নন্দীগ্রাম (বগুড়া) প্রতিনিধি: শীতের আগমনে বগুড়ার নন্দীগ্রামে জমে উঠেছে শীতের কাপড় বেচাকেনা। মৌসুমী ব্যবসায়ীরা বিভিন্ন হাট-বাজারে কাপড়ের দোকান সাজিয়ে বসেছে। নন্দীগ্রাম উপজেলার বিভিন্ন হাট-বাজার ও ফুটপাত থেকে শুরু করে আধুনিক শপিং মলে এখন ক্রেতাদের ভীর বেড়েছে। সরেজমিনে উপজেলার ওমরপুরহাটে গিয়ে দেখা যায়, দোকানিরা ক্রেতাদের আকৃষ্ট করতে দোকানে সোয়েটার, জ্যাকেট, কোট, টুপি, প্যান্ট, ট্রাউজার, মুজা, বাচ্চাদের নানা ডিজাইনের শীতের পোশাক সাজিয়ে রেখেছে। সেখানে বেশি বিক্রি হচ্ছে ছোট বাচ্চাদের শীতের কাপড়। দোকানগুলোতে ১০ টাকা থেকে শুরু করে ৬০০ টাকার কাপড় পাওয়া যাচ্ছে। ‘দেইখা নেন, বাইছা নেন, খালি ৫০ টাকা’। ৫০ টাকা এমন হাঁক দিয়ে ক্রেতাদের আকৃষ্ট করছে হাটের মৌসুমী ব্যবসায়ী খোকন হোসেন। তিনি বলেন, প্রতিবছর আমি শীতের কাপড়ের ব্যবসা করে থাকি। পুরোপুরি শীত না পড়লে বিক্রি বেশি ভালো হয় না। তারপরেও বেচাকেনা খুব খারাপ নয়। হাটে শীতের কাপড় কিনতে আসা মানিক মিয়া জানান, আমি গরিব মানুষ। আমার বাড়িতে ৬ জন মানুষ আছে। শীত আসিচ্ছে তাই পরিবারের লোকজনের জন্য গরম কাপড় কিনছি। ৪২০ টাকা দিয়ে ছোট বড় ৭ টা কাপড় কিনেছি। নন্দীগ্রামের রংধনু ফ্যাশনের বিক্রেতা বেলাল হোসেন বলেন, ক্রেতাদের ক্রয় ক্ষমতার কথা বিবেচনা করে আমরা সবধরনের কাপড় দোকানে রেখেছি।