বগুড়ায় নিরাপদ অভিবাসন ও দক্ষতা উন্নয়ন শীর্ষক সেমিনার অনুষ্ঠিত

সঞ্জু রায়, স্টাফ রিপোর্টার: বগুড়ায় কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্র (টিটিসি) এর আয়োজনে এবং জেলা প্রশাসনের সহযোগিতায় সোমবার সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত বগুড়া জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সম্মেলন কক্ষে নিরাপদ অভিবাসন ও দক্ষতা উন্নয়ন শীর্ষক সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়েছে।
অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মাসুম আলী বেগের সভাপতিত্বে সেমিনারে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন বগুড়া জেলা প্রশাসক মো: জিয়াউল হক। প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি বলেন, নিরাপদ অভিবাসন নিশ্চিতে এবং প্রবাসগামীদের দক্ষতার উন্নয়নে বর্তমান সরকার নানা ইতিবাচক কার্যক্রম পরিচালনা করছে। নিরাপদ অর্ভিবাসন সম্পর্কিত সরকারের বর্তমানে পরিচালিত এই কার্যক্রম সম্পর্কে তৃণমূলে স্বচ্ছ বার্তা পৌঁছাতে হবে সেখানে ইউনিয়ন ও উপজেলা পর্যায়ে বেশি গুরুত্ব দিতে হবে। এছাড়াও গণমাধ্যমকর্মীদের সাথে সমন্বয় করে নিরাপদ অভিবাসন সম্পর্কিত ইতিবাচক প্রতিবেদন প্রকাশের মাধ্যমে ব্যাপক প্রচারণার ব্যবস্থাও করতে হবে মর্মে বলেন জেলা প্রশাসক। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আবু সুফিয়ান সফিক এবং সেমিনারের মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন জেলা কর্মসংস্থান ও জনশক্তি অফিস বগুড়ার সহকারী পরিচালক আতিকুর রহমান। সেমিনারের শুরুতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্র (টিটিসি) বগুড়ার অধ্যক্ষ সুশান্ত কুমার রায়। এছাড়াও সেমিনারে মুক্ত আলোচনায় বক্তব্য রাখেন বগুড়া সদরের ভারপ্রাপ্ত উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নুরুল ইসলাম, কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর বগুড়ার অতিরিক্ত উপপরিচালক মুহা: মশিদুল হক, এনজিও কর্মী রকিবুল হক খান ও আশরাফুল ইসলাম, দৈনিক চাঁদনী বাজারের স্টাফ রিপোর্টার সঞ্জু রায় এবং আদিবাসী পরিষদ নেতা সুরেশ। ‘শতবর্ষে জাতির পিতা, সুবর্ণে স্বাধীনতা, অভিবাসনে আনবো মর্যাদা ও নৈতিকতা’ এই প্রতিপাদ্যতে প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের জনশক্তি, কর্মসংস্থান ও প্রর্শিক্ষণ ব্যুরো বছরজুড়ে দেশব্যাপী নিরাপদ অভিবাসন ও দক্ষতা উন্নয়নে ব্যাপক কার্যক্রম পরিচালনা করছে যা সেমিনারে উপস্থিত সকলকে অবগত করা হয় যারা সেই বার্তাগুলো এক একজন এ্যাম্বাসেডর এর ভূমিকায় পৌঁছিয়ে দেবেন তৃণমূল পর্যায়ে। সেমিনারে জানানো হয়, বর্তমান সরকার ইতিমধ্যেই ৬৪টি জেলাতে টিটিসি স্থাপন করেছেন এবং বর্তমানে নতুন করে আরও ১০০টি উপজেলায় টিটিসি স্থাপনের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। বৈধভাবে বিদেশ যাওয়ার কোন বিকল্প নেই তাই দক্ষ হয়ে বিদেশ গেলে অদক্ষ কর্মীর চেয়ে ৩গুণ বেশি বেতন পাওয়া সম্ভব। উল্লেখ্য, রংপুর ও রাজশাহী বিভাগের ১৬টি জেলার মাঝে অভিবাসনের ক্ষেত্রে বগুড়া সবচেয়ে এগিয়ে তাই সরকারি সহযোগিতা ও প্রশিক্ষণ নিয়েই সমৃদ্ধি অর্জনে এবং দেশের রেমিটেন্স খাতকে আরও শক্তিশালী করতে দক্ষ হয়েই বিদেশ যাওয়ার আহ্বান জানানো হয় সেমিনারে।