সরাইলে ছেলের লাঠির আঘাতে বাবা খুন

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইলে ছেলে মনির হোসেনের লাঠির আঘাতে ছোট্ট মিয়া (৬৫) নামে এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন। এ সময় ছেলে হাত থেকে স্বামীকে রক্ষা করতে গিয়ে নিহতের স্ত্রী মিনারা বেগমও আহত হয়েছেন। সোমবার (৬ ডিসেম্বর) বিকেলে উপজেলার পানিশ্বর ইউনিয়নের বেড়তলা পশ্চিমপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় ঘাতক মনির হোসেনকে নিজ বাড়ি থেকে আটক করেছে পুলিশ। পুলিশ ও এলাকাবাসী জানায়, পানিশ্বর ইউনিয়নের বেড়তলা পশ্চিমপাড়া গ্রামের ছোট্ট মিয়া নরসিংদী ও তার ছেলে মনির হোসেন সিলেটে ইট ভাটায় শ্রমিক হিসেবে কাজ করতেন। কাজের সুবাদে মনির ইট ভাটা মালিকের কাছ থেকে অগ্রিম টাকা নিয়ে আসেন। তবে বাড়িতে এসে আর কাজে যাচ্ছিলেন না তিনি। পরে ভাটার মালিকের পক্ষ থেকে তার বাবা ছোট্ট মিয়াকে বিষয়টি জানানো হয়। বিষয়টি জেনে ছোট্ট মিয়া তার ছেলে মনিরকে আজ বিকেলে সিলেটে গিয়ে ইট ভাটার কাজে যোগ দেওয়ার জন্যে চাপ দেন। এতে ক্ষিপ্ত হন মনির। এক পর্যায়ে উত্তেজিত হয়ে ধান মারাইয়ের একটি হাতল দিয়ে বাবার মাথায় আঘাত করে বসেন। এতে ঘটনাস্থলেই ছোট্ট মিয়া মারা যান। এ সময় স্বামীকে বাঁচাতে গিয়ে তার স্ত্রী (ঘাতকের মা) মিনারা বেগমও আহত হন। তাকে উদ্ধার করে সরাইল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে সরাইল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আসলাম হোসেন জানান, ঘাতক মনিরকে আটক করা হয়েছে। এ ঘটনায় নিহতের ভাই মজিবুর রহমান বাদী হয়ে মনির হোসেনকে আসামি করে থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি নিচ্ছেন। মামলা হলে মনিরকে গ্রেপ্তার দেখিয়ে আদালতে পাঠানো হবে।