মহান বিজয় দিবস: বর্ণিল সাজে সেজেছে বেরোবি ক্যাম্পাস

ইভান চৌধুরী, বেরোবি প্রতিনিধি:-রাত পোঁহালেই ১৬ই ডিসেম্বর। মহান বিজয় দিবস। এই দিনে বিশ্ব মানচিত্রে জন্ম নেয় নতুন একটি দেশ বাংলাদেশ। যার পেছনে রয়েছে দীর্ঘ ৯ মাসের রক্তক্ষয়ী যুদ্ধ। লাখো শহীদের ত্যাগ-তিতিক্ষা আর আত্মত্যাগের বিনিময়ে অর্জিত হয় আমাদের স্বাধীনতা।

বাঙালির প্রাণের আবেগের এই দিনটি ঘিরে আনন্দের তাই শেষ নেই। বিজয়ের আমেজে ভাসতে পিছিয়ে নেই রংপুরের বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয় (বেরোবি) ক্যাম্পাস।

মহান বিজয় দিবস, ‍মুজিবর্ষের সমাপনী ও বাংলাদেশের সুর্বণজয়ন্তী উপলক্ষে সমগ্র ক্যাম্পাস মেতেছে বিজয়ের উল্লাসে। ইতোমধ্যেই ক্যাম্পাসের মূল ফটক, স্বাধীনতা স্মারক, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর ম্যুরাল, কৃষ্ণচূড়া সড়ক, দেবদারু সড়ক সহ পুরো ক্যাম্পাস সাজানো হয়েছে বর্ণিল সাজে। ক্যাম্পাসে মনকড়া এমন আলোকসজ্জায় মুগ্ধ সবাই।

কারমাইকেল কলেজ থেকে ঘুরতে এসেছেন জান্নাত নিশা। তিনি জানান, বাহির থেকে সাজানো দেখেই বিজয়ের আনন্দ অনুভব করছিলাম। ক্যাম্পাসে ঢুকে দেখি বিজয়ের উল্লাসে মেতেছে সবাই। বিভিন্ন রঙ ও বর্ণের এসব আলোকসজ্জা উৎসবমুখর পরিবেশ সৃষ্টি করেছে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের শিক্ষার্থী ফোরকান বলেন, প্রতিদিনের ক্যাম্পাস আর আজকের ক্যাম্পাস একদমই আলাদা। আলোকসজ্জার কারণে যে দৃশ্যপট সৃষ্টি হয়েছে তা আসলেই চোখ ধাঁধানো। যে কারণে ক্যাম্পাসের এই নতুন দৃশ্য বন্ধুদের সঙ্গে মোবাইলে ধারণ করলাম।

এদিকে দিনটি উপলক্ষে নানান কর্মসূচিও হাতে নিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। দিবসের শুরুতে সকাল ৯টায় জাতীয় পতাকা ও বিশ্ববিদ্যালয়ের পতাকা উত্তোলন, সকাল ৯টা ২০মিনিটে স্বাধীনতা স্মারকে শ্রদ্ধাঞ্জলী অর্পণ, দুপুর ১টা ৪৫মিনিটে ভার্চুয়াল আলোচনা সভা এবং সর্বশেষ বিজয় ‍উদযাপনের মূল আকর্ষণ সন্ধ্যা ৭টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের সেন্ট্রাল খেলার মাঠে ফানুস উড়ানো ও আতশবাজি।

মহান বিজয় দিবস, ‍মুজিবর্ষের সমাপনী ও বাংলাদেশের সুর্বণজয়ন্তী উৎযাপন কমিটির সদস্য সচিব ও লোকপ্রশাসন বিভাগের সহকারী অধ্যাপক সাব্বীর আহমেদ চৌধুরী বলেন, ‘১৬ই ডিসেম্বর মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে দিনটি যথাযোগ্য মর্যাদায় উৎযাপনের জন্য আমরা সর্বাত্মক চেষ্টা করছি। দিনটি ভালো ভাবে উদযাপনের জন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের সকলের সহযোগিতাও কামনা করেন তিনি।’