আধুনিক রাষ্ট্র গঠনে আ’লীগ সরকার নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে-এসএম কামাল

গাবতলী (বগুড়া) প্রতিনিধি-বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও রাজশাহী বিভাগীয় দায়িত্বপ্রাপ্ত নেতা এসএম কামাল হোসেন বলেছেন, গণতন্ত্রের মানষকন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ উন্নয়নে দূর্বার গতিতে এগিয়ে চলছে। কৃষি, শিক্ষা, স্বাস্থ্য, বিদ্যুৎ, রাস্তাঘাটসহ সকল ক্ষেত্রে দেশের সার্বিক উন্নয়ন সাধিত হয়েছে। দেশে ৫’শ ৫১টি আধুনিক মসজিদ নির্মাণ করছেন। গৃহহীন ও অসহায় মুক্তিযোদ্ধাদের বাড়ী নির্মাণ করে দিচ্ছেন। আধুনিক রাষ্ট্র গঠনে বর্তমান সরকার নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। তিনি বলেন, শেখ হাসিনা সমাজের অসহায় মানুষের কথা চিন্তা করে বিভিন্ন ভাতার ব্যবস্থা করেছেন। বছরের শুরুতেই ছাত্রছাত্রীদের হাতে বই তুলে দিচ্ছেন। স্বাস্থ্যসেবা মানুষের দৌরগোড়ায় পৌঁছে দিয়েছেন। যা বিগত জোট সরকারের আমলে কোনটাই হয়নি। তিনি জিয়ার সমালোচনা করে বলেন, জিয়াউর রহমান ছিলেন পাকিস্থানের এজেন্ট। যুদ্ধের সময় জাহাজ থেকে অস্ত্র খালাসের দায়িত্বে ছিলেন। বঙ্গবন্ধুর হত্যার পরবর্তী সময়ে জিয়া অস্ত্র ঠেকিয়ে ক্ষমতায় এসে বঙ্গবন্ধুর খুনিদের আশ্রয় প্রশ্রয় দিয়েছেন। তিনি আরও বলেন, বেগম খালেদা জিয়ার শাসন আমলে তারেক রহমান হাওয়া ভবন খুলে দূর্নীতির আতুরঘর বানিয়ে ছিলেন। এ জন্যই দেশ সে সময় দূর্নীতিতে বিশ্বে ৫বার চ্যাম্পিয়ান হয়েছিল। তারেক রহমান তার অসুস্থ্য মা’কে দেখতে না আসলেও বিদেশে বসে লবিষ্ট নিয়োগ করে সরকারের ভাবমূর্তি নষ্ট করছে। রোববার বগুড়ার গাবতলী উপজেলা আওয়ামী লীগের উদ্যোগে স্থানীয় পাইলট হাইস্কুল মাঠে আয়োজিত ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি উপরোক্ত কথাগুলো বলেন। সকাল সাড়ে ১০টায় দলীয় ও জাতীয় পতাকা উত্তোলনের মধ্যদিয়ে শুরু হয় এই সম্মেলন। সম্মেলনে উদ্বোধনী বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মজিবর রহমান মজনু। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন কেন্দ্রীয় আ’লীগের সদস্য সৈয়দ আব্দুল আওয়াল শামীম। প্রধান বক্তার বক্তব্য রাখেন জেলা আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক রাগেবুল আহসান রিপু। সম্মেলনে আরো বক্তব্য রাখেন জেলা আ’লীগের সহ-সভাপতি এ্যাডঃ মকবুল হোসেন মুকুল ও বীর মুক্তিযোদ্ধা টিএম মুসা পেস্তা, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আসাদুর রহমান দুলু, সাংগঠনিক সম্পাদক এ্যাড. জাকির হোসেন নবাব ও শাহাদৎ আলম ঝুনু এবং বগুড়া পৌর আ’লীগের সভাপতি রফি নেওয়াজ খান রবিন। উপজেলা আ’লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আব্দুস ছালাম ভূলনের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রাজ্জাক মিলুর পরিচালনায় এ সময় উপস্থিত ছিলেন জেলা আ’লীগের সহ-সভাপতি আবুল কালাম আজাদ ও প্রদীপ কুমার রায়, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মুঞ্জুরুল আলম মোহন, সাংগঠনিক সম্পাদক শাহরিয়ার আরিফ ওপেল, প্রচার সম্পাদক সুলতান মাহমুদ খাঁন রনি, যুব ও ক্রীড়াবিষয়ক সম্পাদক মাশরাফি হিরো, মুক্তিযোদ্ধাবিষয়ক সম্পাদক আনিসুজ্জামান মিন্টু, দপ্তর সম্পাদক আলরাজী জুয়েল, মহিলাবিষয়ক সম্পাদক নাসরিন রহমান সীমা, স্বাস্থ্যবিষয়ক সম্পাদক জহুরুল হক বুলবুল, শিক্ষা ও মানব সম্পদ সম্পাদক আনোয়ার পারভেজ রুবন, উপ-দপ্তর সম্পাদক খালেকুজ্জামান রাজা, সদস্য আলমগীর রহমান স্বপন, সাইফুল ইসলাম বুলবুল, আলমগীর রহমান, এমরান হোসেন রিবন, রোমানা আজিজ রিংকি, শফিকুল ইসলাম নাফরু, সাবেক এমপি পটল ও কামরুন নাহার পুতুলের মেয়ে আনিকা মোস্তাফিজ, জেলা যুব মহিলা আ.লীগের সাধারণ সম্পাদক ডালিয়া নাসরিন রিক্তা, হাজি দানেস বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক সাধারণ সম্পাদক অরুন কান্তি রায়, জেলা কৃষকলীগের সাধারণ সম্পাদক মুঞ্জুরুল হক মঞ্জু, জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি নাইমুর রাজ্জাক তিতাসসহ জেলা, উপজেলা ও পৌর আ.লীগ ও সহযোগী সংগঠনের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ। সম্মেলনে ২য় অধিবেশনের শুরুতেই পূর্বের কমিটি বিলুপ্ত ঘোষনা করেন জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মজিবর রহমান মজনু। পরবর্তী সময়ে বিভিন্ন জটিলতায় সম্মেলনে কোন ফলাফল ঘোষণা করা হয়নি। তবে কাল সোমবার ঘোষণা করা হবে উপজেলা আ.লীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের নাম।

 

সর্বশেষ সংবাদ