শাজাহানপুরে রাস্তা থেকে নিম্নমানের ইট তুলে নিলেন পিআইও

সজিবুল আলম সজিব শাজাহানপুর (বগুড়া) প্রতিনিধি:বগুড়ার শাজাহানপুরে সরকারি উন্নয়ন প্রকল্প রাস্তার কাজে নিম্নমানের ইট ব্যবহারের ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হওয়ায় সমালোচনার মুখে পড়ে উপজেলা প্রশাসন। অবশেষে উপজেলা প্রকল্প কর্মকর্তা সরেজমিনে উপস্থিত হয়ে নিম্নমানের বিছানো ইট রাস্তা থেকে তুলে নিয়েছেন। ঘটনাটি টক অব দ্যা শাজাহানপুরে পরিণত হয়েছে।
জানা গেছে, ২০২১-২২ অর্থ বছরের টিআর প্রকল্পের আওতায় চোপীনগর ইউনিয়নের বৃ-কুষ্টিয়া গ্রামে স্থানীয় সংসদ সদস্যের বরাদ্দ থেকে একটি প্রকল্প দেওয়া হয়। প্রকল্প কমিটি আজ সোমবার সকাল থেকে নিম্নমানের ইট দিয়ে রাস্তা সোলিং কাজ শুরু করে দুপুরের নাগাদ শেষ করে। খবর পেয়ে স্থানীয় গণমাধ্যম কর্মীরা সরেজমিনে গিয়ে নিম্নমানের ইট দিয়ে রাস্তা সোলিং করার ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে পোস্ট করে। মুহুর্তের মধ্যে পোস্ট ফেসবুকে ভাইরাল হয়ে যায়। সমালোচনার মুখে পড়ে উপজেলা প্রশাসন। অবশেষে বেলা ৩ টার দিকে সরেজমিনে গিয়ে উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা(পিআইও) প্রকল্প কমিটিকে রাস্তা থেকে ইট তুলতে নির্দেশ দেন। উপায়ান্তর না পেয়ে পিআইও এর সামনে প্রকল্প কমিটি রাস্তায় বিছানো নিম্নমানের ইট তুলে নিয়ে যায়। এ বিষয়ে জানতে চাইলে প্রকল্প সাধারণ সম্পাদক ক্ষমতাসীনদলের নেতা মনিরুল ইসলাম মনির জানান, ভাটা থেকে ভুলক্রমে ১নং ইট এর স্থলে ২নং এসেছিল। এ কারণে মিসটেক হয়েছে। উপজেলা প্রকল্প অফিসের নির্দেশে সঙ্গে সঙ্গে রাস্তায় বিছানো ইট তুলে দেওয়া হয়েছে। অতি দ্রুত ১নং ইট দিয়ে কাজ করে দেওয়া হবে। উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মাহবুবর রহমান জানান, উপজেলা নির্বাহী অফিসারের মারফতে মোবাইল ফোনে জানতে পেরে দ্রুত সরেজমিনে গিয়ে রাস্তায় বিছানো নিম্নমানের ইট তুলতে প্রকল্প কমিটিকে নির্দেশ নেওয়া হয়। নির্দেশ অনুযায়ী সঙ্গে সঙ্গে প্রকল্প কমিটি রাস্তা থেকে নিম্নমানের ইট তুলে নিয়ে যায়। এছাড়া সিডিউল মোতাবেক ওই রাস্তায় কাজ করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।