শাজাহানপুরের স্কুল শিক্ষিকাকে মারপিট থানায় অভিযোগ

শাজাহানপুর (বগুড়া) প্রতিনিধি:পারিবারিক সম্পত্তি নিয়ে বিরোধের জের ধরে প্রতিপক্ষের মারপিটে আহত হয়েছেন বগুড়ার শাজাহানপুরের এক স্কুল শিক্ষিকা। এ ঘটনায় থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের হয়েছে। ঘটনার ৪ দিন অতিবাহিত হলেও পুলিশ কোন ব্যবস্থা নেয়নি বলে অভিযোগ করেছেন ভুক্তভোগী শিক্ষিকার পরিবার। মারপিটে আহত শারমিন আক্তার(৩৮) উপজেলার গোহাইল ইউনিয়নের চকদুলাহার সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষিকা ।
অভিযোগ সুত্রে জানা গেছে, দক্ষিণ ঠনঠনিয়া গ্রামের মৃত ফজলুল করিমের মেয়ে গত ৮মে রবিবার সকাল ৯টার সময় তাসফারহানা আফরোজা ও তাসফারজানা আফরোজা বাসায় মিস্ত্রি দিয়ে মোটর পাম্প বসে নিচ্ছিলেন। এমন সময় প্রতিপক্ষ আব্দুল হাকিম, তার স্ত্রী তাস আফসানা আফরোজা, নূরে আলম আসরাফি নবিন, তার স্ত্রী তোহরা বেগম, পুত্র আলিফ তাদেরকে মোটর পাম্প বসাতে নিষেধ করে গালিগালাজ করতে থাকে। তখন তাসফারহানা আফরোজা গালিগালাজ করতে নিষেধ করিলে প্রতিপক্ষরা উত্তেজিত হয়ে তার ভাই নুরে আরাফাত আশরাফীকে লাঠি-সোটা দিয়ে বেদম মারপিট শুরু করে। এ সময় স্বামীকে বাঁচাতে স্কুল শিক্ষিকা শারমিন আক্তার এগিয়ে গেলে প্রতিপক্ষরা তাকেও লাঠি-সোডা দিয়ে বেদম মারপিট করে। এতে শারমিনের মাথা ফেটে যায়। আহত শিক্ষিকা শারমিন বগুড়া মোহাম্মাদ আলী হাসপাতালে চিকিৎসা শেষে বর্তমানে নিজ বাসা ছেড়ে পরিবারসহ অন্যত্র বসবাস করছেন। এ ঘটনায় তাসফারহানা আফরোজা বাদী হয়ে ওই দিনেই থানায় প্রতিপক্ষ উপরোক্ত ৫ জনের বিরুদ্ধে বগুড়া সদর থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করে। অভিযোগে প্রধান অভিযুক্ত আব্দুল হাকিম মুঠোফোনে জানান, তিনি ওই পরিবারের জামাই। মারামারির সময় তিনি ঘটনাস্থলে উপস্থিত ছিলেন না। তবুও প্রতিহিংসা করে তাকে অভিযোগে জড়ানো হয়েছে।
অভিযাগকারীর ভাই নুরে আরাফাত আশরাফী জানান, অভিযোগ দায়েরের ৪ দিনেও ঘটনার তদন্তে আসেনি পুলিশ । উল্টো ঘটনার রাতে প্রতিপক্ষের সাজানো একটি অভিযোগে থানায় নিয়ে বোন, স্ত্রীসহ আমাকে আহত অবস্থায় ২/৩ ঘন্টা আটকে রেখেছিল। পরে আত্বীয়স্বজনেরা মুচলেকা দিয়ে থানা থেকে ছাড়িয়ে নেয়।
অভিযোগের তদন্তকারী কর্মকর্তা বনানী পুলিশ ফাঁড়ির উপ-পরিদর্শক সাজ্জাদ হোসেন জানান, পিতার সম্পত্তি নিয়ে ভাই-বোনদের মধ্যে বিরোধ দীর্ঘদিনের। এ বিরোধের জের ধরে প্রতিপক্ষের মধ্যে মারপিট ও ভাংচুরের ঘটনা ঘটে । উভয় পক্ষ থানায় পাল্টাপাল্টি অভিযোগ দায়ের করেছে। তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

সর্বশেষ সংবাদ