তানোর পৌরসভার কালীগঞ্জ হটের খানাখন্দ ভরাট করলেন সমাজ সেবক সুজন

তানোর প্রতিনিধি: ভোটে পাশ করে কথা রাখেনি মেয়র ইমরুল হক। মেয়র ইমরুল হকের হাটের রাস্তায় সৃষ্টি হওয়া খানাখন্দ ইট বালু দিয়ে ভরাট করে মহৎ কাজের মানসিকতা দেখালেন বিশিষ্ট সমাজসেবক আবুল বাসার সুজন। গতকাল শুক্রবার সকালে তানোর পৌর এলাকার ঐতিহ্যবাহী কালীগঞ্জ হাটের মেইন প্রবেশদার রাস্তা ভেঙ্গে দীর্ঘদিন ধরে খানাখন্দ সৃষ্টি হয়ে পানি জমে থাকে। এতে পানি নিষ্কাসনের কোন ব্যবস্থা না থাকায় হাটে আশা জনসাধারণর কে প্রতিনিয়ত ব্যাপক ভোগান্তি পোহাতে হয়। ব্যবসায়ীরা একাধিকবার মেয়র কে অবহিত করলেও মেয়র কোন ব্যবস্থা নেয়নি। এমনকি হাট ইজারার প্রায় ৪০% টাকা হাটের উন্নয়ন কাজে ব্যবহার করার কথা থাকলেও হাট ইজারার কোন টাকা হাটের উন্নয়নে ব্যয় করা হয়না। ফলে হাটে আশা মানুষদের বছরজুড়েই দূর্ভোগ পোহাতে হয় প্রতিনিয়ত। অথচ হাটে আশা জনসাধারণের জন্য যে কাজ পৌর মেয়রের করার কথা সেই কাজ করতে হচ্ছে বিশিষ্ট সমাজসেবক আবুল বাসার সুজনকে। কালীগঞ্জ হাটে আশা কিছু ব্যবসায়ী ও সাধারণ মানুষের সাথে কথা বলে জানা গেছে, কালিগঞ্জ হাটের মেইন রাস্তা ভেঙ্গে খানাখন্দ সৃষ্টি হয়ে পানি জমে থাকায় ব্যাপক ভোগান্তির মধ্যে পড়তে হয় হাটে আশা ফড়িয়া ব্যবসায়ী ও সাধারণ মানুষদের। মালামাল নিয়ে গাড়ি পারাপার করতেও সৃষ্টি হয় যানজট। মেয়র কে অবহিত করলেও কোন লাভ হয়নি। অবশেষে বিশিষ্ট সমাজসেবক আবুল বাসার সুজনকে ধরে এ হাটের খানাখন্দ ইট বালু দিয়ে ভরাট করে নেয়া হয়েছে। পৌরসভার হাটের উন্নয়ন যদি অন্যকে দিয়ে করে নিতে হয় তাহলে পৌরসভা থেকে কি লাভ বলে চরম ক্ষোভ প্রকাশ করেন তাঁরা। এবিষয়ে তানোর পৌর মেয়র ইমরুল হক বলেন, কালিগঞ্জ হাট ইজারা দিয়ে যে টাকা পাওয়া যায় তা দিয়ে হাটের উন্নয়ন করা সম্ভব না। তাই হাটের উন্নয়নে ইজারার টাকা ব্যয় করা সম্ভব হয়না। আপনার হাটের উন্নয়নে সমাজসেবক আবুল বাসার সুজনের নিজ অর্থায়নে রাস্তার ভাঙ্গা খানাখন্দ ইট বালু দিয়ে ভরাট করে দিয়েছে যা আপনার করার কথা সে বিষয়ে আপনার মন্তব্য কি জানতে চাইলে তিনি সাব বলেন সুজনের এটা বাড়াবাড়ি ছাড়া কিছুই না। বিশিষ্ট সমাজসেবক আবুল বাসার সুজন জানান, দীর্ঘদিন ধরে রাস্তাটি খানাখন্দ সৃষ্টি হয়ে পানি জমে থাকতো, ব্যবসায়ীরা একাধিকবার মেয়রকে অবহিত করলেও তিনি কোন প্রদক্ষেপ নেয়নি। যার জন্য হাটে আশা জনসাধারণ আমার কাছে আবদার করেছেন খানাখন্দ গুলো ইট বালু দিয়ে ভরাট করার জন্য। তাদের আবদারে আমি নিজে উপস্থিত থেকে ইট বালু দিয়ে ভরাট করে দিয়েছি। আমি কোন ভোটের আশায় বা নিজের স্বার্থের জন্য এটা করিনি। আমি যা করেছি হাটে আশা জনসাধারণের জন্য করেছি।