জিয়া স্মৃতি ফুটবল টুর্নামেন্টের উদ্বোধন করলেন মির্জা ফখরুল

জেলা প্রতিনিধি,লালমনিরহাট-স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে জিয়া স্মৃতি ফুটবল টুর্নামেন্টের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।
বৃহস্পতিবার (১২ মে) বিকেলের লালমনিরহাটের বড়বাড়ী শহীদ আবুল কাশেম মহাবিদ্যালয় মাঠে রংপুর বিভাগীয় টুর্নামেন্টের জমকালো আয়োজনের মধ্যে দিয়ে এর উদ্বোধন ঘোষণা করা হয়।
১২ মে শুরু হয়ে রংপুর বিভাগের আট জেলার ৮ টি টিম নিয়ে টুর্নামেন্ট চলবে ২৬ মে পর্যন্ত। সমাপনী অনুষ্ঠানে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন উপস্থিত থেকে পুরষ্কার বিতরণ করবেন।
এদিকে জিয়া ফুটবল টুর্নামেন্ট উপলক্ষে বড়বাড়ি শহীদ আবুল কাশেম মহাবিদ্যালয় মাঠে ব্যানার ফেস্টুন দিয়ে সাজানো হয়। দুপুরের পর থেকে বিএনপির আট জেলা থেকে আগত বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ দলে দলে যোগ দেন। এছাড়াও মিছিল নিয়েও আশেপাশের উপজেলা থেকে নেতাকর্মীরা মাঠে উপস্থিত হয়।
পরে সাড়ে চারটার দিকে বিএনপি মহাসচিব অন্যান্য অতিথিবৃন্দকে নিয়ে মাঠে এসে মঞ্চে আসন গ্রহণ করেন।
পরে সেখানে বিভিন্ন সাংস্কৃতিক সংগঠনের উদ্যোগে দেশাত্মবোধক গানে নৃত্য ও ডিসপ্লে প্রদশর্ন করা হয়। এছাড়াও স্কুল কলেজের শিক্ষার্থীদের যৌতুক, মাদকের বিরুদ্ধে শপথ পড়ানো হয়। অতিথিরা মঞ্চে বসে এসব উপস্থাপনা উপভোগ করেন।
জাতীয় সঙ্গীত পরিবেশনের মধ্য দিয়ে খেলা শুরু করে দুই দলের খেলোয়াড় ও উপস্থিত দর্শক করতালি দিয়ে আয়োজনকে স্বাগত জানান।
আজকের খেলায় পঞ্চগড় জেলা বিএনপি বনাম লালমনিরহাট জেলা বিএনপি অংশ নেয়।
এর আগে দুপুরের দিকে মির্জা ফখরুল লালমনিরহাটের রেলওয়ে সোহরাওয়ার্দী মাঠ থেকে এক সাইকেল র‍্যালীতে অংশ নেন। র‍্যালীটি শহরের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে বড়বাড়ি পৌঁছায়।
বিএনপির কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক ও সাবেক মন্ত্রী অধ্যক্ষ আসাদুল হাবিব দুলুর সভাপতিত্বে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন, কেন্দ্রীয় বিএনপির সদস্য ব্যারিস্টার হাসান রাজিব প্রধান, ফুটবলার আমিনুল ইসলাম, ঢাকা সিটি মেয়র প্রার্থী তাবিথ আউয়াল, জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক হাফিজুর রহমান বাবলা, সিনিয়র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মমিনুল হক, সাংগঠনিক সম্পাদক আফজাল হোসেন, রংপুর জেলা বিএনপির আহবায়ক সাইফুল ইসলাম, সদস্য সচিব আনিছুর রহমান লাকু,রংপুর মহানগর বিএনপির আহবায়ক সামছুম্মামান সামু সহ বিএনপির ও অঙ্গ সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।