বদলগাছীতে ঝড়ে লন্ডভন্ড গ্রাম, ভেঙ্গে পড়েছে গাছপালা,পানির নীচে ধানক্ষেত

আবু সাইদ বদলগাছীঃ নওগাঁর বদলগাছী উপজেলায় আবার ও শনিবার ভোর রাতে কালবৈশাখী ঝড় তান্ডব চালিয়েছে। এতে করে লন্ডভন্ড হয়ে পড়েছে প্রায় শতাধিক গ্রাম। ধান, আম, ভুট্টা, পটলসহ বিভিন্ন ফসলের হয়েছে ব্যাপক ক্ষতি। ভেঙে গেছে টিনশেড ও আধাঁ পাকা ঘর। বিচ্ছিন্ন হয়েছে বিদ্যুৎ সরবরাহ। উপড়ে পড়েছে বহু গাছপালা । দিশেহারা হয়ে পড়েছেন কৃষক ও এলাকাবাসী।
জানা যায়, শনিবার রাত ২টায় হঠাৎ ঝড় ও বৃষ্টি শুরু হয়। বৃষ্টির পরিমাণ কম হলেও বাতাসের বেগ ছিলো অনেক বেশি । বৃষ্টি ও ঝড়ের সাথে ভারী বজ্রপাতও হয়েছে। অনেক মানুষের থাকার একমাত্র স্থাপনার সবকিছু বাতাসে উড়ে গেছে। ভেঙে পড়েছে কাঁচা-পাকা ঘর। উড়ে গেছে ঘরের চালা। উপড়ে পড়েছে হাজার হাজার গাছ। রাস্তায় উপর গাছ ভেঙ্গে পড়ায় যান চলাকাল ব্যহত হচ্ছে। বিকল হয়ে পড়েছে বিদ্যুৎ ব্যবস্থা। ঝড়ে ঘরের দেয়াল চাপা পড়ে, গাছের ডাল পড়ে, প্রাচীরের ইট পড়ে বিভিন্নভাবে অর্ধশতাধিক মানুষ আহত হয়েছেন বলে জানিয়েছেন অনেকেই। ঝড় শেষে সকাল গড়িয়ে গেলেও কৃষি বিভাগের কোন লোকজন মাঠ পরিদর্শন করেনি বলে অভিযোগ করেন এলাকাবাসী।
সরেজমিনে বদলগাছী উপজেলার ৮ ইউপিতে খোঁজ নিয়ে জানাযায়, গত কয়েক দিন ধরেই কালবৈশাখী ঝড় ব্যপক তান্ডব চালাচ্ছে । এতে ক্ষতির পরিমাণ পুষিয়ে উঠতে না উঠতে শনিবার ভোড়ের কাল বৈশাখীর ঝড় ও বৃষ্টি বদলগাছী উপজেলার উপর ব্যপক তান্ডব চালিয়েছে। কোলা,মথরাপুর,আধাইপুর,বদলগাছীসদর, পাহাড়পুর, বিলাসবাড়ী, মিঠাপুর ও বালুভরা ইউপির ধান, আম,ভূট্রা,পটল, কালা, লাউয়ের ব্যপক ক্ষতি হয়েছে। শতশত গাছ ভেঙ্গে রাস্তার উপর গাছপালা ভেঙ্গে পড়ে বিভিন্ন রাস্তায় যান চলাচল বন্ধ হয়ে পড়েছে।যা সরাতে ব্যস্ত হয়ে পড়েছে এলাকার লোকজন।
বদলগাছীর চকালম গ্রামের মজিদ বলেন, শনিবার ভোড়ে কালবৈশাখীর আঘাতে রাস্তায় ভেঙ্গে পড়ে রয়েছে শতশত গাছ। সকাল ৯টা পর্যন্ত রাস্তায় পড়ে থাকা গাছ কেউ সরাতে আসেনি। এতে করে জনগণের চলাচলে বাধা পেতে হয়েছে। আশেপাশের লোকজনকে ৬ কি:মি: ঘুরে বাজারে যেতে হচ্ছে।
জাবারি পুর গ্রামের বিপুল বলেন,ঝড়ে আমগাছ উপরে পড়েছে,বৈদ্যুতিক লাইনর পোল পড়ে গেছে,কোথাও তার ছিড়ে ঝুলে আছে। লাগাতার বৃষ্টি হওয়ায় পাকা ধান পানির নিচে তলিয়ে গেছে।
বাড়ীর পাশে থাকা গাছগুলো ভেঙ্গে পড়েছে বাড়ীর উপর।কোথাও কোথাও ঘরবাড়ির ভেঙে যাওয়ার পাশাপাশি উড়ে গেছে অনেক স্থাপনা। বিচ্ছিন্ন হয়েছে বিদ্যুৎ সরবরাহ।
লক্ষীকুল গ্রামের ভ্যানচালক মাজেদুল ফকির বলেন, ‘বউ বাচ্চা নিয়ে ঘরত আছিনু। রাতে খুব জোড়ে বাতাস হছছিল কিন্তু এমন যে হইবে তা হামরা বুঝতে পারিনি। গাছ ভেঙ্গে পড়েছে বাড়ীর উপর। ভ্যাগিস বাইরে আছুনো। নইলে সবাই মারে গেনু হেনি। গাছ পড়ে টিন ফাঁক হয়ে গেছে ও ইটের দেওয়ালের ইট এসে পড়েছে বিছানায়। ইট পড়ে খাট ভেঙ্গে গেছে।এখন খোলা আকাশের নীচে। এখন ঘর সারমো কেমনে,বাচ্চাদের নিয়ে কী করমো হামরা। আল্লাহ্ কেন গরিবের দুঃখ দেখে না।’

বদলগাছী পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি জানিয়েছেন, ঝড়ো হাওয়ায় বদলগাছী উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় বিদ্যুতের অনেক খুটি হেলে পড়েছে । বিদ্যুতের লাইনের উপর গাছপালা পড়েছে। বিভিন্ন জায়গায় তার ছিড়ে গেছে। বিদ্যুৎ সরবরাহ স্বাভাবিক করতে শনিবার ভোর থেকেই কাজ চলছে। খুব দ্রুতই পুরো উপজেলায় বিদ্যুৎ সরবরাহ করা যাবে।
কোলা ইউপি চেয়ারম্যান শাহিনুর ইনলাম স্বপন বলেন, ঝড়ে কোলা ইউপি সহ বদলগাছী উপজেলার ব্যপক ক্ষতি হয়েছে। স্থাানীয় ভাবে ক্ষতি গ্রস্তদের তালিকা তৈরি করা হচ্ছে যা দূর্যোগ ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের পাঠানো হবে।