বগুড়ায় ৪ দিনব্যাপী ক্যাম্পেইনে প্রায় ৫ লাখ শিশুকে খাওয়ানো হবে ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাপসুল

সঞ্জু রায়, বগুড়া: ‘ভিটামিন এ খাওয়ান, শিশু মৃত্যুর ঝুঁকি কমান’ স্লোগানে বগুড়ায় ৪ লাখ ৮০ হাজার ৪‘শ ৮৫ জন শিশুকে ভিটামিন এ প্লাস ক্যাপসুল খাওয়ানোর লক্ষ্যমাত্রা নিয়ে ১৫ জুন থেকে ১৯ জুন ৪দিন ব্যাপী ক্যাম্পেইন শুরু হচ্ছে।
সিভিল সার্জন অফিস বগুড়ার আয়োজনে মঙ্গলবার দুপুরে অফিসের সভা কক্ষে উক্ত ক্যাম্পেইন এর বিষয়ে সাংবাদিকদের ওরিয়েন্টেশন কর্মশালায় এসব তথ্য দেন জেলা সিভিল সার্জন ডাঃ মোহাম্মদ শফিউল আজম।
কর্মশালায় জেলা সিভিল সার্জন জানান যে, ভিটামিন ‘এ’ শুধু অপুষ্টিজনিত অন্ধত্ব প্রতিরোধই করেনা বরং রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করে ডায়রিয়ার ব্যাপ্তিকাল ও জটিলতা দূর করে শিশু মৃত্যুর হার কমায়। এছাড়াও কোভিড-১৯ এ আক্রান্ত হওয়ারও ঝুঁকি কমায়। তাই জাতীয় কর্মসূচি হিসেবে জাতীয় পুষ্টিসেবা, জনস্বাস্থ্য পুষ্টি প্রতিষ্ঠান, স্বাস্থ্য অধিদপ্তর, স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের বাস্তবায়নে বগুড়ায় ২ হাজার ৮’শ ৬টি কেন্দ্রের মাধ্যমে এইবার ৬ থেকে ১১ মাস বয়সী প্রায় ৫৬ হাজার ৬’শ ১৭ জন শিশুকে একটি করে নীল রঙের ক্যাপসুল এবং ১২ থেকে ৫৯ মাস বয়সী প্রায় ৪ লক্ষ ২৩ হাজার ৮’শ ৬৮ জন শিশুকে লাল রঙের একটি করে ক্যাপসুল খাওয়ানোর লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে। এই ক্যাম্পেইন ১৫ জুন বুধবার শুরু হয়ে চলবে আগামী ১৯ জুন রবিবার পর্যন্ত মোট ৪দিন চলবে যেখানে মাঝে শুক্রবার ক্যাপসুল খাওয়ানো বন্ধ থাকবে। এই ৪ দিন জেলার সকল ইপিআই টিকাদান কেন্দ্র গুলোতে সকাল ৯টা থেকে দুপুর ৩টা পর্যন্ত  চলবে উক্ত ক্যাম্পেইনের কার্যক্রম। তিনি আরো জানান, বগুড়ার প্রতিটি কেন্দ্রে স্বাস্থ্য বিভাগের একজন প্রতিনিধি এবং ২ জন করে প্রশিক্ষিত সেচ্ছাসেবী থাকবে এই ক্যাম্পেইন পরিচালনার ক্ষেত্রে। এছাড়াও কারা এই ক্যাপসুল খেতে পারবে না এমন প্রশ্নে সিভিল সার্জন জানান, গত ৪ মাসের মধ্যে যারা এই ক্যাপসুল খেয়েছে তারা পাবেনা, শিশু অসুস্থ কিংবা তার অভিভাবক সেচ্ছায় যদি তার সন্তানকে উক্ত ক্যাপসুল না খাওয়াতে চান, ৫ বছরের বেশী এবং ৬ মাসের কম বয়সী শিশুরা এই ক্যাপসুল খেতে পারবেনা। সভায় এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন বগুড়া সদর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ সামির হোসেন মিশু, ডেপুটি সিভিল সার্জন ডাঃ শাহনাজ পারভীন, সিভিল সার্জন কার্যালয়ের মেডিকেল অফিসার ডাঃ সাজ্জাদ-উল-হক ও ডাঃ দিবাকর বসাক, বগুড়া প্রেসক্লাবের সভাপতি মাহমুদুল আলম নয়ন, সাধারণ সম্পাদক আমজাদ হোসেন মিন্টুসহ জেলায় কর্মরত প্রিন্ট ও ইলেক্ট্রনিক মিডিয়ার সাংবাদিকবৃন্দ। পুরো অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন সিভিল সার্জন কার্যালয়ের পরিসংখ্যানবিদ সাহারুল ইসলাম খান। পরিশেষে গণমাধ্যমকর্মীদের মাধ্যমে উক্ত ক্যাম্পেইন বাস্তবায়নের লক্ষ্যে বগুড়ার সকলের আন্তরিক সহযোগিতা কামনা করে জেলা সিভিল সার্জন ডা: শফিউল আজম সভার সমাপ্তি করেন।