বগুড়ায় ল্যাব এইডের সাথে পুলিশের স্বাস্থ্য সেবামূলক চুক্তি স্বাক্ষর

সঞ্জু রায়, বগুড়া: বগুড়ায় পুলিশের সকল শাখা এবং জয়পুরহাট জেলা পুলিশের সকল সদস্য ও তাদের পরিবারের সদস্যদের মানসম্মত স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিতে ল্যাব এইড লিমিটেড (ডায়াগনস্টিকস্) এর সাথে পুলিশের স্বাস্থ্য সেবামূলক চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছে।
বাংলাদেশ পুলিশ রাজশাহী রেঞ্জের ডিআইজি আব্দুল বাতেনের নির্দেশনায় শনিবার সকালে বগুড়া জেলা পুলিশ সুপার কার্যালয়ের সভাকক্ষে পুলিশ সদস্যদের জন্যে এমন ব্যতিক্রমী উদ্যোগ বাস্তবায়নে চুক্তিপত্রে স্বাক্ষর করেন জেলা পুলিশ সুপার সুদীপ কুমার চক্রবর্ত্তী বিপিএম এবং ল্যাব এইড লিমিটেড এর পক্ষে স্বাক্ষর করেন বগুড়া শাখার ইনচার্জ মাহবুর রহমান মাহবুব।
চুক্তি প্রসঙ্গে অনুষ্ঠানে বগুড়া জেলা পুলিশ সুপার সুদীপ চক্রবর্ত্তী বলেন, বগুড়া জেলা পুলিশের পাশাপাশি বগুড়ায় কর্মরত বিভিন্ন ইউনিট যথাক্রমে সিআইডি, পিবিআই, ইন সার্ভিস, ট্যুরিস্ট পুলিশ, হাইওয়ে পুলিশ, ৪ এপিবিএন এবং একই সাথে জয়পুরহাট জেলা পুলিশের সকল সদস্য এবং তাদের পরিবারের সদস্যদের মানসম্মত স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিতে ল্যাব এইডের সাথে এই চুক্তির মাধ্যমে নতুন এক দিগন্ত উন্মোচিত হবে। চিকিৎসা সেবা প্রাপ্তিতে অধঃস্তন অনেক পুলিশ সদস্য নিজেদের অর্থনৈতিক প্রতিকূলতার কথা প্রকাশ করতে পারে না কিন্তু তারাও এখন অনুভব করবে যে তাদের সিনিয়র কর্মকর্তারা তাদের কথা ভাবে। এসপি সুদীপ আরো বলেন, বগুড়ায় ল্যাব এইডে পুলিশ সদস্যরা এখন থেকে প্যাথলজিক্যাল সকল টেস্ট, ইকো, এক্সরে, ইটিটি, সিটি স্ক্যান, এমআরআইসহ সকল ধরণের পরীক্ষায় তাদের পরিবারের সদস্যদের জন্যে পর্যন্ত ৩০ শতাংশ ছাড় পাবেন। শুধু তাই নয় কম খরচে তাদের থেকে এ্যাম্বুলেন্স সেবা প্রাপ্তি, শহরে ঘরে বসেই বিনা খরচে সকল ধরণের টেস্ট করানোর সুবিধা এবং জটিল অনেক পরীক্ষা যা বাহিরে ব্যয়বহুল ও অপ্রতুল তাও ল্যাব এইড বগুড়া নিশ্চিত করবে যা পুলিশ পরিবারের জন্যে আনন্দের ও সুখকর বার্তা। আর এই চুক্তির মাধ্যমে বগুড়া ও জয়পুরহাট মিলিয়ে পুলিশ ও তাদের পরিবারের সদস্যসহ প্রায় ৩৫ হাজার মানুষ উপকৃত হবে মর্মে প্রত্যাশা ব্যক্ত করেন তিনি।
ল্যাবএইড বগুড়া শাখার ইনচার্জ মাহবুর রহমান বলেন, ‘পুলিশ সদস্যদের চিকিৎসাসেবায় পাশে দাঁড়াতে পেরে তারা গর্বিত ও আনন্দিত। যারা দেশের নিরাপত্তা দেন তাঁদের কল্যাণ, নিরাপত্তা ও সুস্থতা অনেক গুরুত্বপূর্ণ। স্বল্প খরচে বগুড়া ও জয়পুরহাট পুলিশ সদস্য ও তাঁদের পরিবারের সদস্যদের চিকিৎসাসেবা নিশ্চিত করার জন্য এই চুক্তি স্বাক্ষর করা হলো।
চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মাঝে আরো উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ক্রাইম অ্যান্ড অপস্) আব্দুর রশিদ, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) শরাফত ইসলাম, সদর থানার অফিসার ইনচার্জ নূরে আলম সিদ্দিকী, ডিআইও ১ শামসুন নূর, জেলা গোয়েন্দা শাখার ইনচার্জ সাইহান ওলিউল্লাহ, ট্রাফিক ইন্সপেক্টর (প্রশাসন) মাহবুবুল ইসলাম খান, সদর পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ ইন্সপেক্টর শাহীনুজ্জামান, সদর থানার সেকেন্ড অফিসার মঞ্জুরুল হক ভূঁইয়া, ল্যাব এইড বগুড়ার এডমিন অফিসার সইফুল ইসলাম রবিন, সিনিয়র এক্সিকিউটিভ সেলস্ আহসান হাবিবসহ জেলা পুলিশের বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তা এবং ল্যাবএইড বগুড়ার সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

সর্বশেষ সংবাদ