খুলনায় পানিতে ডুবে শিশু মৃত্যু প্রতিরোধ বিষয়ক বিভাগীয় কর্মশালা অনুষ্ঠিত

আজ সোমবার আশ্রয় ফাউন্ডেশন এবং গণসাক্ষরতা অভিযান এর যৌথ আয়োজনে খুলনায় হোটেল ওয়েস্টার্ন ইন এ পানিতে ডুবে শিশু মৃত্যু প্রতিরোধ বিষয়ক বিভাগীয় কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়।
উক্ত বিভাগীয় কর্মশালায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন খুলনা বিভাগীয় কমিশনার (সার্বিক)  মোঃ আব্দুর রশিদ। প্রধান অতিথি তাঁর বক্তব্যে বলেন, “দেশের গ্রামগুলোর জলাশয়গুলোতে পানি দূষণের কারণে শিশুরা সাঁতার শিখতে পারেনা। যত্রতত্র উন্মুক্ত জলাশয় থাকার কারণে দূর্ঘটনা বেশি ঘটে। আর শহরে সাঁতার শেখার তো কোন সুযোগই নেই। আমরা শিশুদের জিপিএ-৫ পাওয়ার জন্য সকাল সন্ধ্যা প্রাইভেট-কোচিং করাচ্ছি, খেলাধুলা ও সাংস্কৃতিক কর্মকান্ডে যুক্ত করছি কিন্তু সাঁতার শেখানোর গুরুত্বটা অবহেলায় বাদ পড়ে যায়। ফলে সে যখন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষা সফরে যায়, কর্মজীবনে গিয়ে বিভিন্ন জলপথে চলাচল করে তখন আতংকে থাকে এবং পানিতে পড়লে নিশ্চিত মৃত্যুর দিকে এগিয়ে যায়। কমিউনিটি ও পরিবার পর্যায়ে সচেতনতা বাড়ানো দরকার, ধর্মীয় নেতারা যদি মসজিদ, মন্দিরে কিংবা ধর্মীয় অনুষ্ঠানগুলোতে সামাজিক এই গুরুত্বহীন বিষয়গুলো সম্পর্কে মানুষকে গুরুত্ব দিয়ে সচেতন করেন, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে উঠান বৈঠকে শিক্ষকরা যদি সচেতন করেন, এনজিওরা যদি নিজ নিজ উদ্যোগে কিছু কর্মসূচি হাতে নেয় কিংবা তাদের ফোরামগুলোতে বিষয়টি তুলে ধরেন, মিডিয়া যদি আরো বেশি ফিচার নিউজ, স্টোরি নির্ভর ফলোআপ নিউজ করে গণসচেতনতা সৃষ্টি করেন তাহলে সরকারি কর্মকর্তারাও তাদের নিজেদের কর্মসূচির মাধ্যমেই পানিতে ডুবে শিশু মৃত্যু কমিয়ে আনতে এবং প্রতিরোধে উল্লেখযোগ্য ভূমিকা রাখতে পারবে। আপনার আমার সবার ঘরেই শিশু আছে, পরিবারকেন্দ্রিক শিশুর সুরক্ষা ও যতেœ সচেতনতা খুবই বেশি প্রয়োজন।”
কর্মশালা উপলক্ষ্যে সমাপনী আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন খুলনার অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) মুকুল কুমার মৈত্র। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের খুলনা বিভাগীয় উপ-পরিচালক মোঃ মোসলেম উদ্দিন, গণসাক্ষরতা অভিযান এর উপ-পরিচালক ড. মোস্তাফিজুর রহমান, খুলনা জেলার সিভিল সার্জন ডাঃ সুজাত আহমেদ। অনুষ্ঠানে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন গ্লোবাল হেলথ অ্যাডভোকেসি ইনকিউবেটর এর কান্ট্রি লিড এবং গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের সাবেক অতিরিক্ত সচিব মুহাম্মদ রূহুল কুদ্দূস। কর্মশালায় শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন আশ্রয় ফাউন্ডেশন এর নির্বাহী পরিচালক মমতাজ বেগম। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা আশ্রয় ফাউন্ডেশনের শিক্ষা কর্মসূচির প্রধান বনশ্রী ভান্ডারী।
উক্ত কর্মশালায় কমিউনিটি, শিক্ষক, এনজিও প্রতিনিধি, মিডিয়া, যুব প্রতিনিধি, ভুক্তভোগী অভিভাবক এবং সরকারের বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তাসহ প্রায় ৬০ জন অংশগ্রহণ করেন। উপস্থিত অংশগ্রহণকারীরা ছয়টি গ্রুপে বিভক্ত হয়ে পানিতে ডুবে শিশু মৃত্যু প্রতিরোধে বিদ্যমান সমস্যা ও চ্যালেঞ্জ, করণীয় এবং কার কি দায়িত্ব তা লিখে অতিথিদের সামনে উপস্থাপন করেন। উল্লেখ্য মিডিয়া নিয়ে কাজ করা সংগঠন ‘সমষ্টি’ এর মিডিয়া মনিটরিং রিপোর্ট অনুযায়ী খুলনা বিভাগে ২০২২ সালের ০১ জানুয়ারি থেকে ১৫ অক্টোবর পর্যন্ত পানিতে ডুবে মৃত্যুর শিকার ৯২ জন, খুলনা জেলায় ৭ জন এবং  ২০২১ সালে খুলনা বিভাগে ১১১ জন ও খুলনা জেলায় ৮ জন। তবে বাস্তব চিত্র এর চেয়েও কয়েকগুণ বলে অভিমত বিশেষজ্ঞদের।