দুপচাঁচিয়ায় সাংবাদিককে মারপিট-থানায় অভিযোগ

দুপচাঁচিয়া(বগুড়া) প্রতিনিধিঃ-দুপচাঁচিয়ায় পূর্ব শত্রুতার জের ধরে দৈনিক নয়াদিগন্ত ও দৈনিক উত্তর কোণ পত্রিকার দুপচাঁচিয়া উপজেলা প্রতিনিধি এবং উপজেলা প্রেসক্লাবের সহপ্রচার সম্পাদক আবু রায়হান(৩৫)কে গত ২৫অক্টোবর মঙ্গলবার দুপুরে মারপিট করা হয়েছে। মারপিটে আহত হয়ে বর্তমানে তিনি দুপচাঁচিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। এ ঘটনায় আবু রায়হান বাদী হয়ে গত মঙ্গলবার রাতে থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন।
অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, দীর্ঘদিনধরে আছমা ক্লিনিক এন্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টারের মালিক আব্বাস আলীর সঙ্গে তাদের জায়গায় যাতায়াতের রাস্তাকে কেন্দ্র করে ঝগড়া বিবাদ চলে আসছিল। এরই ধারাবাহিকতায় আব্বাস আলী ও তার লোকজন রায়হানকে ভয়ভীতি ও হুমকি প্রদর্শন করায় তিনি চলতি বছরের ২৬জুন দুপচাঁচিয়া থানায় একটি সাধারণ ডায়েরী করেন এবং জায়গা সংক্রান্ত বিষয়ে চলতি বছরের ১৬জুন ও ২৮আগস্ট দুপচাঁচিয়া পৌরসভায় অভিযোগও দায়ের করেন। এর পর থেকে বিবাদীরা তাকে থানা থেকে সাধারণ ডায়েরী ও পৌরসভা থেকে অভিযোগ তুলে নেয়ার জন্য হুমকি ধামকি প্রদান করতে থাকেন। এরই জের ধরে গত ২৫অক্টোবর মঙ্গলবার দুপুরে আবু রায়হান তার ব্যবসা প্রতিষ্ঠান থেকে নিজ বাড়িতে যাবার পথে দুপচাঁচিয়া থানাধীন আক্কেলপুর রোডস্থ আছমা ক্লিনিকের সামনে পৌঁছিলে বিবাদী পাইকপাড়া গ্রামের মৃত ছইমুদ্দিন প্রামানিকের ছেলে বেলাল হোসেনের নির্দেশে আব্বাস আলীসহ অন্যান্য বিবাদীরা রায়হানকে অকথ্যভাষায় গালিগালাজ করা সহ তাকে মারপিট করে গুরুতর আহত করে। এসময় রায়হানের চিৎকারে স্থানীয় লোকজন এগিয়ে আসতে থাকলে বিবাদীরা তাকে প্রাণনাশের ভয়ভীতি ও হুমকি দিয়ে চলে যায়। পরে স্থানীয় লোকজন তাকে উদ্ধার করে দুপচাঁচিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করান।
দুপচাঁচিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ আবুল কালাম আজাদ অভিযোগ পাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, অভিযোগের বিষয়ে তদন্ত করে ঘটনার সত্যতা পাওয়া গেলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।