জিয়াউর রহমানের মধ্যে রাষ্ট্রপতি হওয়ার লোলুপ দৃষ্টি ছিল : রাসিক মেয়র 

রাবি প্রতিনিধি : রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে(রাবি) ঐতিহাসিক জেলহত্যা দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।
বৃহস্পতিবার (৩ নভেম্বর) ১২ টায় রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ সিনেট ভবনে এ আয়োজিত এক আলোচনা সভায় এ কথা বলেন রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের (রাসিক) মেয়র ও বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য এ. এইচ.এম. খায়রুজ্জামান লিটন।
তিনি বলেন, জিয়াউর রহমানের মধ্যে বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতি হওয়ার একটা লোলুপ দৃষ্টি ছিল । এজন্যই তিনি বাংলার ইতিহাসের সবচেয়ে নিকৃষ্টতম হত্যাকান্ড চালিয়েছিলেন। তিনি এবং তার পরিবারের সদস্যরা এই দায় কখনোই এরাতে পারবেন না।
তিনি আরো বলেন, জাতীয় চার নেতার মধ্যে অদ্ভুত ধরনের চারিত্রিক মিল ছিল। আমি সবার জীবনী সম্পর্কে তাদের সন্তানদের কাছ থেকে শুনেছি। একজন কামরুজ্জামান যিনি ব্যক্তি জীবনে অত্যন্ত নির্লোভ ধরনের মানুষ ছিলেন। যাকে আমি বসে খাবার খেতেও দেখেছি।
আপনাদের নিশ্চয়ই মনে আছে, সিমলা চুক্তির পরে পাকিস্তান যাদেরকে ফিরিয়ে নিয়ে গিয়েছিল তাদেরকে আর চাকরিতে রাখা হয়নি। এইটাই নিয়ম যে পরাজিত কাউকে মূল কাঠামোতে রাখা যায় না। কারণ তারা তাদের পরাজয়টা ভুলতে পারে না তাই তারা নানা ভাবে ষড়যন্ত্র করতে থাকে।
কর্নেল ফারুক রশীদের মতো আরও যারা আছে তাদের কখনও মুক্তিযুদ্ধা বলা যায় না। মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে ধারণ করলে তারা বঙ্গবন্ধুর মতো একটা বিশাল ব্যক্তিত্বকে হত্যা করতে পারত না।
এখন, এইসকল চক্রান্তে যারা ছিল তাদের বিচারের জন্য আজ দাবি উঠেছে।
আলোচনা সভায় বক্তা হিসেবে আরো ছিলেন রাবি উপাচার্য অধ্যাপক ড গোলাম সাব্বির সাত্তার, প্রধান আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক দুলাল চন্দ বিশ্বাস,  বিশেষ অতিথি হিসেবে ছিলেন উপ-উপাচার্য অধ্যাপক মো. সুলতান-উল-ইসলাম, অধ্যাপক মো. অবায়দুর রহমান।